ঘণ্টায় ৬০৩ কিমি গতিতে ছুটল জাপানি ট্রেন

ট্রেনে উঠে বসলেন। স্ট্রাট বাটতে চাপ দিলেন চালক। বসে থাকুন এক ঘণ্টা। কত দূরে পৌঁছানোর আশা করেন আপনি? বাংলাদেশ হলে ঢাকা থেকে জয়দেবপুরের বেশি নয় নিশ্চয়! কিন্তু আপনি যদি জাপানে থাকেন, তবে পৌঁছে যাবেন ৬০৩ কিলোমিটার দূরের কোনো গন্তব্যে, কোনো ঝক্কি-ঝামেলা ছাড়াই।

 

অবশ্য গতির এই তুলনা টানা এক অর্থে বাহুল্য। কারণ বাংলাদেশে ম্যাগনেটিক ট্রেন এখনো এক স্বপ্নই বলা যায়। তা ছাড়া ঘাটে ঘাটে ধরনা দিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতেই সময় পার হয়ে যায়। ট্রেন গতি ছুটিয়ে চলে চীনে, জাপানে এমনকি ভারতেও। উন্নত দেশগুলোতেও সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ট্রেন চলে।

 

যে ধরনের ট্রেনই হোক, সর্বোচ্চ গতির ট্রেন বানিয়ে বারবার বিশ্বকে অবাক করে দিয়েছে জাপান। মঙ্গলবার দেশটি এ ধরনের গতিওয়ালা ট্রেনের পরীক্ষা চালিয়ে রেকর্ড সৃষ্টি করেছে। ম্যাগনেটিক এই ট্রেন ঘণ্টায় ছুটেছে ৬০৩ কিলোমিটার গতিতে। এর আগে কোনো দেশে এত বেশি গতির ট্রেন আর দেখা যায়নি। ট্রেনটি প্রতি সাড়ে ১০ সেকেন্ডে চলেছে এক কিলোমিটার পথ।

 

গত সপ্তাহে জাপানের এই ট্রেন ঘণ্টায় ৫৯০ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করেছিল। মঙ্গলবার সেই রেকর্ড ভেঙে ঘণ্টায় ৬০৩ কিলোমিটার পাড়ি দিল ট্রেনটি। জাপানের কেন্দ্রীয় রেলওয়ের একজন ওপারেটর সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

 

চুম্বকীয় ক্ষেত্র সৃষ্টি করে পাতের ওপর ট্রেনটি চার ইঞ্চি পরিমাণ উচ্চতায় চলে থাকে। এই ব্যবস্থাকে বলে ‘ম্যাগনেটিক লেভিটেশন’। সাতটি বগিবিশিষ্ট এই ট্রেন ৬০০ কিলোমিটার গতিতে চালানোর টার্গেট ছিল কর্তৃপক্ষের। কিন্তু প্রত্যাশার চেয়ে একটু বেশিই প্রাপ্তি হয়েছে।

 

রেকর্ড গতিতে চলা ট্রেনটি দেখতে অসংখ্য মানুষ ভিড় জমায়। এ নিয়ে বয়স্কা এক নারী বলেন, ‘আমি বিমোহিত। এই ট্রেনে আমি চড়তে চাই। আমি ইতিহাসের এক পাতার সাক্ষী হলাম।’

 

তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইন।

You Might Also Like