খেলাটাকে পাগলের মতোই ভালোবাসেন মেসি

শৈশবেই ফুটবলের সঙ্গে বেঁধেছেন প্রাণ, ফুটবলের জন্য ছেড়েছেন ঘর, ছেড়েছেন মাতৃভূমি। সেই ফুটবলে নাকি আগের মতো ‘টান’ অনুভব করেন না লিওনেল মেসি! সপ্তাহ দুয়েক আগে মেসির গোলখরা ও ঘরের মাঠে ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে বার্সেলোনার পরাজয়ে এমন মন্তব্য করেছিলেন বার্সা ও বোকা জুনিয়র্সের সাবেক সহকারী কোচ আঙ্গেল কাপ্পা। স্বদেশির এ মন্তব্য ফুত্কারে উড়িয়েই দিয়েছেন মেসি।

বার্সার প্রাণভোমরা ‘রেডিও লা রেড’কে বললেন, ‘কাপ্পার মন্তব্যকে মোটেও পাত্তা দিচ্ছি না। জানি না তিনি কেন এমনটা বললেন। আমার ভাবনাজুড়ে কেবল নিজের ছন্দ ফিরে পাওয়া। খেলার প্রতি আত্মনিবেদনের কমতি নেই। যখন গোল করি না, তখনো ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে খুশি থাকি। জানি, আমাকে কী করতে হবে এবং ফুটবলকে কীভাবে অনুভব করতে হবে।’

ইনজুরির ফাঁড়ায় পড়ে প্রায় দুই মাস ছিটকে পড়েছিলেন মাঠ থেকে। এ প্রসঙ্গে আর্জেন্টিনা অধিনায়ক জানালেন, ‘ইনজুরি স্বাভাবিকভাবেই নিয়েছি। সুস্থ হতে বেশ সময় লেগেছে। তাই বলে এখনই দুরন্ত গতিতে ছোটার মতো অবস্থা হয়নি। একেকটি ম্যাচ খেলছি আর ভালো অনুভব করছি।’

ওদিকে তাঁর বার্সা-সতীর্থ জাভি হার্নান্দেজ বলেছেন, সর্বকালের সেরা খেলোয়াড় হতে মেসিকে বিশ্বকাপ জেতার দরকার নেই, ‘অনেকে বলেন, ফুটবল ইতিহাসে সর্বকালের সেরা হতে বিশ্বকাপ জিততে হবে মেসিকে। গত ছয়-সাত বছরে ও যেভাবে খেলেছে, সেরা হতে সে ম্যাচগুলোই যথেষ্ট।’

গতকাল জোড়া গোল করে নিজেকে নতুন উচ্চতায় নিয়েছেন মেসি। ছাড়িয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদ কিংবদন্তি আলফ্রেড ডি স্টেফানোকে। লা লিগার সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় মেসির নাম এখন সাবেক এই আর্জেন্টাইন কিংবদন্তির ওপরে। ২২৮ গোল নিয়ে মেসি এখন রাউলের পাশে। বাদ রইল কেবল হুগো সানচেজ (২৩৪) আর তেলমো জারা (২৫১)। এ ছাড়া জারার আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ রেকর্ড এরই মধ্যে ভেঙে দিয়েছেন—স্পেনের এক ক্লাবের হয়ে সবচেয়ে বেশি গোল করার রেকর্ড। অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের হয়ে জারা করেছিলেন ৩৩৫ গোল। বার্সেলোনার হয়ে মেসির গোল এখন ৩৩৭টি।

সর্বশেষ তিন ম্যাচে পাঁচ গোল—এই পরিসংখ্যানও তো বলছে, ফুটবলে তাঁর আত্মনিবেদনের ঘাটতি-টাটতির কথা বলা স্রেফ বাতুলতা। ওয়েবসাইট।

You Might Also Like