আবারও মামলা চালাবেন হ্যাপি

বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার রুবেল হোসেনের বিরুদ্ধে চলচ্চিত্র অভিনেত্রী নাজনীন আক্তার হ্যাপির করা মামলা নতুন মোড় নিতে যাচ্ছে। কিছুদিন আগে হ্যাপি জানিয়েছিলেন, রুবেলের বিরুদ্ধে আর মামলা লড়বেন না তিনি। কিন্তু হঠাৎ তিনি তার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে বলছেন, রুবেলের বিরুদ্ধে মামলা চালিয়ে যাবেন।
কেন এখন মামলা লড়তে চাচ্ছেন, এমন প্রশ্নের জবাবে হ্যাপি বলেন, ‘আবেগের কারণে এতদিন বলে এসেছি যে, মামলা লড়ব না। কিন্তু আমি এখন আর আবেগের দ্বারা চলতে চাই না। আমি মনে করছি, এ মামলার বিচার হলে আমাকে দেখে অনেকেই তাদের প্রতি অন্যায়ের বিচার চাইতে উৎসাহিত হবে। আর আমার ভুল দেখে অনেকেই আর ভুল পথে পা বাড়াবে না। আমি এ বিষয়ে আমার আইনজীবী তুহিন হালদারের সঙ্গে কথা বলেছি। তার সঙ্গে আলোচনা করেই আমি পরবর্তী পদক্ষেপ নেব।’
এর আগে গত ১ মার্চ রোববার রাতে হ্যাপি জানিয়েছিলেন যে, তিনি রুবেলের বিরুদ্ধে আর মামলা চালিয়ে যেতে চান না। কারণ, জানতে চাইলে তিনি বলেছিলেন, ‘রুবেলকে আমি ভালোবাসি। তার সঙ্গে মামলা করে শত্রুতা করতে চাইনি। শুধু ভালোবাসার অধিকার ফিরে পেতে চেয়েছি।’
গত বছরের ১৩ ডিসেম্বর জাতীয় ক্রিকেট দলের পেসার রুবেল হোসেনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন নাজনীন আক্তার হ্যাপি (১৯)। তিনি বাদী হয়ে মিরপুর মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলাটি দায়ের করেন।
সে সময় বাদীর এজাহারের বরাত দিয়ে মিরপুর মডেল থানার পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ‘জাতীয় দলের ক্রিকেটার রুবেল হোসেনের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়েছে।’
গত ৮ জানুয়ারি এ মামলায় রুবেল হোসেনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত। সে সময় দুদিন কারাগারে থেকে জামিন পান রুবেল। এরপর তিনি জাতীয় দলের হয়ে বিশ্বকাপে খেলতে যান।

You Might Also Like