আরো দণ্ড কার্যকরের আশা অ্যাটর্নি জেনারেলের

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধকালে মানবতাবিরোধী অপরাধে দণ্ডাদেশ পাওয়া বিএনপির নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদের মামলাসহ বেশ কয়েকটি মামলা চলতি বছরই নিষ্পত্তি হবে।

কামারুজ্জামানের দণ্ড কার্যকরের পর আজ রোববার দুপুরে এক প্রতিক্রিয়ায় নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন অ্যাটর্নি জেনারেল। তিনি বলেন, ‘আমি আশা করি, এসব মামলার নিষ্পত্তির মাধ্যমে আরো দণ্ড কার্যকর হবে।’

মাহবুবে আলম বলেন, ‘রায় কার্যকর হওয়ায় স্বস্তি অনুভব করেছি। তবে সাঈদীর কথা মনে পড়লে দুঃখ রয়েই যায়।’ তিনি বলেন, ‘যুদ্ধাপরাধী আব্দুল কাদের মোল্লা ও কামারুজ্জামানের ফাঁসি হলেও জামায়াতের অপর নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মৃত্যুদণ্ড না হওয়ায় মনে দুঃখ রয়ে গেছে।’ প্রসিকিউটর ও তদন্ত সংস্থার গাফিলতির কারণে সাঈদীর মৃত্যুদণ্ড হয়নি বলে মন্তব্য করেন তিনি।

মানবতাবিরোধী অপরাধে এ বছর আর কোনো মামলার নিষ্পত্তি হতে পারে কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, ‘পরবর্তী তালিকায় আছে মুজাহিদ ও সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর মামলা। আশা করছি, এ বছরের মধ্যে বেশ কয়েকটি মামলার নিষ্পত্তি হবে। আর বর্তমান আপিল বিভাগ যে গতিতে এসব মামলার শুনানি গ্রহণ করছেন; তা সন্তোষজনক।’

মাহবুবে আলম বলেন, আসামিদের পক্ষ থেকে সময়ক্ষেপণের নানা রকম প্রচেষ্টা চালানো হয়েছে। তবে এটা আর বেশি দিন হতে পারবে না।

মুক্তিযুদ্ধকালে মানবতাবিরোধী অপরাধে ২০১৩ সালের ১২ ডিসেম্বর জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আবদুল কাদের মোল্লাকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।

গতকাল শনিবার রাতে জামায়াতের অপর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মুহাম্মদ কামারুজ্জামানকে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।

এদিকে ট্রাইব্যুনালে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর দণ্ড কমিয়ে আপিল বিভাগে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

You Might Also Like