রাহানের সেঞ্চুরিতে ভারতের লিড

 আজিঙ্ক রাহানের সেঞ্চুরির সুবাদে প্রথম ইনিংসে ৪৩৮ রান সংগ্রহ করেছে সফরকারী ভারত। এর আগে ইশান্ত শর্মার গতিরমুখে পড়ে ১৯২ রানেই গুটিয়ে যায় স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড।
২৪৬ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে স্বাগতিকরা। দ্বিতীয় দিন শেষে ২৪ রান তুলতেই ওপেনার পিটার ফুলটনের উইকেট হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। এখনও ২২২ রানে পিছিয়ে রয়েছে ঘরের ছেলেরা।
শনিবার ওয়েলিংটনে দ্বিতীয় দিনের মতো ব্যাট করতে নামে ভারত। প্রথম দিনে দুই উইকেট হারিয়ে ১০০ রান সংগ্রহ করে তারা। ৭১ ও ৩ রান নিয়ে ফের ব্যাট করতে নামেন শেখও ধাওয়ান ও ইশান্ত শর্মা। তৃতীয় উইকেট জুটিতে তারা ৫২ রান যোগ করেন। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পতন। ট্রেন্ট বোল্টের শিকার হওয়ার আগে ২৬ রান করেন ইশান্ত শর্মা।
মাত্র দুই রানের জন্য সেঞ্চুরির দেখা পাননি শেখও ধাওয়ান। টিম সাউদির শিকার হওয়ার আগে ১৪ চার ও এক ছয়ে ৯৮ রান করেন ধাওয়ান। জেমস নিজাসের গতির বলে বিভ্রান্ত হন রোহিত শর্মা। রানের খাতাখুলার আগেই ফিরেছেন তিনি। ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে বিরাট কোহলিকে সঙ্গে নিয়ে ৬৩ রানের জুটি গড়েন আজিঙ্ক রাহানে।
শুরু থেকেই রক্ষনাত্তক ছিলেন রাহানে। নিল ওয়াগনারকে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে গালিতে ধরা পরেন কোহলি। সাজঘরে ফেরার আগে চার বাউন্ডারিতে ৩৮ রান করেন ভারতীয় এই সহ-অধিনায়ক।
এরপর অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়ে সপ্তম উইকেটে ১২০ রানের পার্টনারশিপ গড়েন রাহানে। ট্রেন্ট বোল্টের বাউন্সি বলের শিকার হন ধোনি। উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে নয় চার ও এক ছয়ে ৬৮ রান কনের মহেন্দ্র সিং ধোনি। উইকেটের একপাশে ব্যাটসম্যানরা যাওয়া-আসার মধ্যে থাকলেও ব্যতিক্রম ছিলেন রাহানে। তিনি নিজের স্বভাবসুলভ খেলাটা খেলে গেছেন। ধৈর্য্য ধরে উইকেটে টিকে থাকার সুবাদে টেস্ট ক্রিকেটে মেইডেন সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন তিনি।
নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফেরেন আজিঙ্ক রাহানে। তার ১১৮ রানের ইনিংসটি ১৭টি চার ও একটি ছয়ের মারে সাজানো। শেষ দিকে জহির খানের করা ২২ রানের কল্যানে ৪৩৮ রান সংগ্রহ করতে সক্ষম হয় ভারত। নিউজিল্যান্ডের হয়ে তিনটি করে উইকেট নেন টিম সাউদি, ট্রেন্ট বোল্ট ও নিল ওয়াগনার।
২৪৬ রান পিছিয়ে থেকে দিনের পড়ন্ত বিকেলে ব্যাট করতে নামে নিউজিল্যান্ড। উইকেটে নেমে শুরুতেই বিপদে পড়ে স্বাগতিকরা। স্কোর বোর্ডে তখন রান এক। এমন অবস্থায় জহির খানের বলে এলবিডব্লিউ হন পিটার ফুলটন। শেষ বিকেলে আর কোন অঘটন ঘটেনি। ১৮ ও ৪ রান নিয়ে অপরাজিত আছেন হামিশ রাদারফোর্ড ও কেন উইলিয়ামসন।

You Might Also Like