‘ভারতকে হারানোর ক্ষমতা আইসিসির নেই’

বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যকার খেলায় আম্পায়ারের বিতর্কিত সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করেছেন অভিনেতা ও চিত্রপরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকী, সাংবাদিক গোলাম মোর্তজা ও হিমালয়জয়ী ওয়াসফিয়া নাজরীন।
অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে খেলা চলাকালে ফেসবুক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে তারা এ সমালোচনা করেন।
ফারুকী তার স্ট্যাটাসে বলেন, ‘আমি দুঃখের সঙ্গে বলতে বাধ্য হচ্ছি যে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) একটি পশুর বিষ্ঠা ছাড়া আর কিছুই নয়। এটা আমাকে বলতে হতো না, যদি আন্তর্জাতিক এই ম্যাচটি নিরপেক্ষ হতো। আমি বলতে চাই, একটি খোড়া যুক্তিতে কোয়াটার ফাইনালের ভেন্যু ও তারিখ পরিবর্তন কি বিশ্বকাপ ফুটবলে সম্ভব? আমি শুধু আম্পায়র নয়, আইসিসির প্রতি তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করছি। সুরেশ রাইনার এলবিডব্লিউটি পরিষ্কার আউট হলেও তা না দেওয়া ছিল নির্লজ্জ সিদ্ধান্ত। আমরা হেরে গেলেও কিছু মনে করব না। কারণ, আজকের খেলাটি নিরপেক্ষ ছিল না। ২০১৫ বিশ্বকাপে পক্ষপাতিত্বের শিকার হলো বাংলাদেশ।’
‘সাপ্তাহিক’ সম্পাদক গোলাম মোর্তজা তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে বলেন, ‘বিশ্বকাপ থেকে ভারত বাদ হয়ে যাওয়া মানে বাণিজ্যিকভাবে বিশ্বকাপ ব্যর্থ হয়ে যাওয়া! যা আইসিসি কখনও করবে না। মাঠের পরিস্থিতি-পরিবেশ যে এমন হবে, তা অনুমেয় ছিল। যে কারণে গত দু-তিন দিনে একবারও বলিনি, বাংলাদেশ জিতবে। বাংলাদেশ জিতবে মানে ভারত হারবে। স্বাভাবিক নিয়মে এমনটা ঘটতে দেওয়ার ক্ষমতা আইসিসি’র নাই। আইসিসি’র ক্ষমতা আছে বাংলাদেশকে হারানোর। আইসিসি সেটাই করছে।’
হিমালয় পর্বতজয়ী ওয়াসফিয়া নাজরীন তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে বলেন, ‘আমি একজন অ্যাথলেট হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) কর্তাব্যক্তিদের কাছ থেকে এমনটি আশা করিনি। (যা বাংলাদেশের সঙ্গে করা হয়েছে)। আমি চেয়েছিলাম, নিরপেক্ষ ও দুর্নীতিমুক্ত খেলা। কেন আমরা এমন খেলায় অংশ নিই, যেখানে দুর্নীতি ছেয়ে গেছে? একজন বাংলাদেশি হিসেবে আমি আমার ছেলেদের নম্রতা, ভদ্রতা ও পেশাদারিত্বের প্রতি স্যালুট জানাই। আর ঘৃণা জানাই এমন সব ভুল সিদ্ধান্তের।’

You Might Also Like