ভারতের কেরালা বিধানসভা রণক্ষেত্র, আহত ২

ভারতের কেরল বিধানসভা আজ (শুক্রবার) রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। মার্শালের ঘেরাটোপে অর্থমন্ত্রী কে এম মণি কোনোপ্রকারে বাজেট পেশ করতে পেরেছেন। সাত মিনিটের মধ্যে বাজেটের কিছু অংশ পড়েই হাল ছেড়ে দেন তিনি। তার বিরুদ্ধে কেরালায় বন্ধ থাকা বার খোলার লাইসেন্স দিতে ঘুষ নেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

 

বিরোধী এলডিএফ এবং বিজেপি আগেই ঘোষণা করেছিল দুর্নীতিতে অভিযুক্ত অর্থমন্ত্রীকে বাজেট পেশ করতে দেয়া হবে না। গতকাল থেকেই বিধানসভা ভবনের বাইরে বিরোধীদের হাজার হাজার সমর্থক জড়ো হয়।

 

গতকাল অর্থমন্ত্রী মণি এবং তার কয়েকজন সহযোগী বিধাসভা চত্বরেরই থেকে যান। মণির ইস্তফার দাবিতে বিরোধীরাও গতকাল অধিবেশন শেষে বিধানসভা এলাকায় অবস্থান নেন। আজ (শুক্রবার) অর্থমন্ত্রী কে এম মণি বাজেট ভাষণ পড়া শুরু করতেই বিরোধী সদস্যরা জোরদার হট্টগোল শুরু করে দেন।

 

 

এক পর্যায়ে বিরোধী এবং ক্ষমতাসীন ইউডিএফ সদস্যদের মধ্যে হাতাহাতি, ধাক্কাধাক্কি শুরু হয়ে যায়। বিরোধীরা বিধানসভার আসবাবপত্রে ভাঙচুর চালিয়ে স্পীকারের চেয়ার ছুঁড়ে ফেলে দেন এবং কম্পিউটার ভেঙে ফেলেন। দু’জন বিধায়ক মারাত্মকভাবে আহত হলে তাদের হাসপাতালে নিয়ে যেতে হয়।

 

আজ বিধানসভার বাইরে বিরোধী এলডিএফ এবং বিজেপি’র যুব মোর্চার সমর্থকরা হিংসাত্মক বিক্ষোভ দেখায়। বিক্ষোভকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট, পাথর ছোঁড়ে। পুলিশ বিক্ষুব্ধ জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে লাঠি চার্জ করে এবং কাঁদানে গ্যাসের সেল ফাটায়।

You Might Also Like