আসল বিএনপির মহাসমাবেশ

আসল বিএনপির পূর্বঘোষিত মহাসমাবেশ ২৬ মার্চ থেকে পিছিয়ে ১০ এপ্রিল করার এবং ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রার্থী দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন সংগঠনটির স্বঘোষিত মুখপাত্র কামরুল হাসান নাসিম।
বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য আবু হেনা, শহিদুল হক জামাল ও নিজেকে একই বলয়ের বলেও দাবি করন তিনি।

 

মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর সেগুন বাগিচায় রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে এক প্রেসব্রিফিংয়ে তিনি এ ঘোষণা দেন।
তিনি বলেন, ‘আসলে আমরা সামনে কী চাচ্ছি ভাত না ভোট? যদি ভাত চাই তাহলে নির্বাচন ২০১৯ সালে হলেও সমস্যা নেই। আর যদি ভোট চাই তবে আগামী বছরই ভোট হওয়া উচিত। তাই ভাত না ভোট? তা নির্ধারণে বিশেষ গণভোটের আহ্বান জানাচ্ছি আমি। এছাড়া পেট্রোল বোমা ও সহিংসতা রুখতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী রাজনৈতিক দলগুলোকে নিয়ে সর্বদলীয় সংগ্রাম কমিটি গড়ারও জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।’

 

তিনি বলেন, ‘১/১১-এর সময় বিএনপির বেশকিছু নেতা দলের ভেতর সংস্কার আনার চেষ্টা করেছিলেন। কেউ করেছিলেন সরকারের বিশেষ একটি গোয়েন্দা সংস্থার সহযোগিতায়। আবার কেউ করেছিলেন দলের ভেতর থেকেই আদর্শিক জায়গা থেকে। সেটা যে কোনো কারণে সফল হয়নি। আবু হেনা ও জামালরা যেভাবে বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে বিএনপি ভাঙার চেষ্টা করছেন, তার সঙ্গে আমি একমত নই। তবে আমরা একই বলয়ের। শুধু চেষ্টাটা আলাদা।’

 

পেট্রোল বোমা ও সহিংসতার জন্য বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার করা উচিত কি না, সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের জবাবে কামরুল হাসান ‍নাসিম বলেন, ‘এসব ঘটনা যাচাই বাছাই এবং তদন্তের পর যদি খালেদা দায়ী বলে প্রমাণিত হন, তবে তাকে অবশ্যই গ্রেফতার করা উচিৎ।’

 

খালেদা জিয়ার বিএনপিকে অবৈধ আখ্যা দিয়ে কামরুল হাসান নাসিম বলেন, ‘আসল বিএনপি ইতিমধ্যেই খালেদা জিয়ার নেতৃত্বকে অবৈধ ঘোষণা করেছে।’

You Might Also Like