‘কারাগারকে নিরাপদ মনে করছেন খালেদা জিয়া’

জাতীয় সংসদের অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া গণবিচ্ছিন্ন হয়ে গেছেন। তিনি মানুষকে ভয় পাচ্ছেন, তাই এখন কারাগারকে নিরাপদ মনে করছেন।

তিনি বলেন, বিএনপি নেত্রী নিজেই কারাগারে যেতে চাচ্ছেন। গ্রেফতার হয়ে তিনি জনরোষ থেকে বাঁচার চেষ্টা করছেন।

বুধবার বিকেলে জাতীয় সংসদ অধিবেশনে জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

খালেদা জিয়ার সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আল্লাহ রাব্বুল আলামিন বলেছেন- সীমা লঙ্গনকারীকে আল্লাহ পছন্দ করেন না। মানুষকে পুড়িয়ে মারার সময় শিশু-নারী কাউকে ছাড় দেয়া হচ্ছে না। মানুষ মারা ও দেশের ক্ষতি করা এটাই যেন তাঁর কাজ। আদালতের নির্দেশও তিনি মানবেন না। তিনি আইন মানেন না। আদালতও মানবেন না।’

জঙ্গী কর্মকাণ্ড মোকাবেলায় সরকার ব্যবস্থা নিচ্ছে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দিন-রাত তৎপর। দেশের মানুষও জঙ্গীদের বিরুদ্ধে।’

বিএনপি চেয়ারপারসনের আদালতে না যাওয়ার সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি জানি না বিএনপি নেত্রী কেন কোর্টে গেলেন না। উনার নাকি নিরাপত্তার অভাব। যিনি মানুষ খুন করছেন তার নিরপাত্তা দিতে হবে আমাকে? তারপরও আমরা নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছি, কিন্তু তিনি যাননি। এখন আইনে যেভাবে আছে সেই মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে। আদালত যেভাবে নির্দেশ দেন সেভাবেই চলতে হবে। কারণ আমরা আইনের শাসন মেনে চলি।’

খালেদা জিয়াকে মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে মন্তব্য করে শেখ হাসিনা বলেন, তিনি যেভাবে নির্বিচারে মানুষ হত্যা করেছেন,  তাতে বের হতে ভয় পাচ্ছেন। তিনি মানুষকে ভয় পান তাই উনি এখন কারাগারকে নিরাপদ মনে করেন। ফলে তিনি নিজেই কারাগারে যেতে চাচ্ছেন। এটাই উনার শেষ ইচ্ছা। না হলে তিনি অফিস রুমে বসে আছেন কেন?’

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলের হরতাল-অবরোধ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘প্রতিটি কর্মদিবসে হরতাল দিয়ে দেশের অর্থনীতি ধ্বংস করা হচ্ছে। মানুষ কষ্ট পাচ্ছেন। ৫ লাখ শিক্ষার্থী নেত্রীর কাছে জিম্মি। তার জঙ্গী কর্মকা- কেউ পছন্দ করেন না। উনার দলের লোকরাও পছন্দ করেন না।’

You Might Also Like