সার্ক সম্পর্কোন্নয়ন প্রয়াসের অংশ হিসেবে জয়শঙ্কর ঢাকায়

সফররত ভারতের পররাষ্ট্র সচিব সুব্রামানিয়াম জয়শঙ্কর সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করে মোদীর একটি চিঠি হস্তান্তর করেন। চিঠিতে খুব শিগগিরই বাংলাদেশ সফরের আগ্রহ প্রকাশ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রধানমন্ত্রীর প্রেসসচিব এ তথ্য জানিয়েছেন

ভারতের নতুন পররাষ্ট্র সচিব জয়শঙ্কর সোমবার সন্ধ্যায় জাতীয় সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন।

সার্ক দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নের প্রয়াসের অংশ হিসেবে জয়শঙ্করকে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে পাঠিয়েছেন মোদী।

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফরের বিষয়ে বৈঠকে শেখ হাসিনা জানতে চাইলে জয়শঙ্কর ইতিবাচক সাড়া দেন বলে জানান শামীম চৌধুরী। প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমরাও তার জন্য অপেক্ষা করছি।” বৈঠকে বাংলাদেশে ভারতের অর্থায়নপুষ্ট প্রকল্পগুলো নিয়েও আলোচনা হয়।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেসসচিব শামীম চৌধুরী বলেন, এলওসির আওতায় বিভিন্ন প্রকল্পগুলো ভালোভাবে এগুচ্ছে বলেও জয়শঙ্কর তার সরকারের সন্তোষের কথা প্রকাশ করেন।

বিদ্যুৎ খাতে বাংলাদেশ ও ভারতের সহযোগিতার বিষয়েও বৈঠকে কথা হয়। ত্রিপুরার পালটানা থেকে আরও বিদ্যুৎ আমদানির বিষয়ে আগ্রহ দেখান শেখ হাসিনা। “জবাবে জয়শঙ্কর বলেছেন, অবশ্যই বাংলাদেশে বিদ্যুৎ আসবে,” বলেন প্রেসসচিব। বিদ্যুৎ উৎপাদনে দুই দেশের বেসরকারি খাতকেও কাছে লাগানোর কথাও বলেন ভারতের পররাষ্ট্র সচিব।

বৈঠকে ভুটান থেকে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ আনার বিষয়েও আলোচনা হয় বলে জানান শামীম চৌধুরী। শিগগিরই বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ‘ট্রেড প্রটোকল’ এবং ‘এগ্রিমেন্ট বিটুইন কোস্টাল শিপিং’ এই দুটি চুক্তি স্বাক্ষরের হওয়ার বিষয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়। ভারতের পররাষ্ট্র সচিব সার্কের বাইরেও দ্বিপক্ষীয় প্রচেষ্টার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের কথাও বলেছেন।

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা গওহর রিজভী, ভারতে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী এবং বাংলাদেশে ভারতের রাষ্ট্রদূত পঙ্কজ সরন উপস্থিত ছিলেন।

You Might Also Like