নির্বাচনে কেউ অংশগ্রহণ করুক বা না করুক নির্বাচন হবে : ইসি

ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে কেউ অংশগ্রহণ করুক বা না করুক নির্বাচন হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ। রোববার বিকেলে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ‘৫ জানুয়ারির জাতীয়নির্বাচনে অংশনে ও য়ার জন্য আমরা সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছিলাম। এবারও আমরা সবার প্রতি একই আহ্বান জানাচ্ছি। ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন রাজধানীবাসীর বহুদিনের কাঙ্ক্ষিত। তাই নির্বাচনে কেউ অংশগ্রহণ করুক বা না করুক নির্বাচন হবে।’

ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের পরিবেশ আছে কিনা- সাংবাদিকদের এ প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ‘আমরা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে বৈঠক করে বিষয়টি বুঝতে পারবো। তবে আশা করি নির্বাচনের আগে দেশের বর্তমান সহিংস পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে।’

কবে নাগাদ নির্বাচন হতে পারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমাদের মাঠ পর্যায়ে কিছু কাজ এখনো বাকি আছে। যেমন- ভোটার তালিকা মিলানো, ভোট গ্রহনের কেন্দ্র ঠিক করা- এরকম আরও কিছু কাজ আছে যা ১০ মার্চের মধ্যে আশা করি শেষ করতে পারবো।’

তিনি বলেন, বর্তমানে এসএসসি পরীক্ষা চলছে। এপ্রিল মাসের প্রথম তারিখেই এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হবে। তাই আমরা এই দুই পরীক্ষার বিষয়টি মাথায় রেখেই সিদ্ধান্ত নেব কবে নির্বাচন হবে।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘রমজান মাসের আগেই এই সিটির নির্বাচন করা হবে।’

তিনি বলেন,‘ আমরা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করবো। কারণ, আমাদের এই নির্বাচন করতে কিছুটা সময় লাগবে। পরীক্ষা চলার কারণে এখন সময় নিয়ে কিছুটা সমস্যায় পড়তে হচ্ছে কারন, আমাদের দেশে নির্বাচন করার জন্য আলাদা কোন ভবন নেই। আমাদের স্কুল কলেজেই নির্বাচনের কেন্দ্র হিসেবে বেছে নিতে হয়। তাছাড়া হরতাল অবরোধের কারনে পরীক্ষাগুলো বার বার পিছিয়ে যাচ্ছে। তাই এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার মাঝে খুব বেশিদিন স্কুল বন্ধ থাকবে না। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে তাদের কাছে নির্বাচন করার জন্য একটা সময় নিবো।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের যুগ্ম সচিব জেসমিন টুলি, নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের পরিচালক (জনসংযোগ বিভাগ) আসাদুজ্জামান আরজু।

You Might Also Like