ভাবীকে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে দেবরের মৃত্যুদণ্ড

ভাবীকে অপহরণের পর ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে দেবরকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত।

রবিবার ঢাকার পঞ্চম নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক তানজীনা ইসমাইল নয় বছর আগে দায়ের এ মামলার রায় দেন।

হত্যার দায়ে মামলার মূল আসামি মো. আলমগীরকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার পাশাপাশি অপহরণ ও ধর্ষণের ঘটনায় ১৪ বছর সশ্রম কারাদণ্ড এবং এক লাখ জরিমানা, অনাদায়ে আরও দুই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

তবে একটি ধারায় মৃত্যুদণ্ড হওয়ায় তার ক্ষেত্রে অন্য সাজা কার্যকর হবে না।

মামলার অপর দুই আসামি আলমগীরের বন্ধু রিপন ও রাহিদ হাসান মিলনকে ১৪ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড ও ২০ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও একবছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

তিন আসামিই মামলার বিচার চলাকালে জামিনে ছিলেন। এদের মধ্যে আলমগীর ও রিপনকে রায় ঘোষণার পর আদালত থেকে কারাগারে পাঠানো হয়। আর মিলন পলাতক রয়েছেন বলে ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আলী আসগর স্বপন জানিয়েছেন।

You Might Also Like