রাজনৈতিক সংকট নিরসনে সমঝোতার উদ্যোগ নিতে ইচ্ছুক প্রবাসী ওলামায়ে কেরাম

বাংলাদেশের বিরাজমান রাজনৈতিক সংকট নিরসনে প্রয়োজনে সমঝোতার উদ্যোগ নিতে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ওলামায়ে কেরাম উদ্যোগ নেবার ইচ্ছা পোষণ করেছে। বাংলোদেশের চলমান পরিস্থিতি নিয়ে বুধবার নিউ ইয়র্কের বিভিন্ন মসজিদের খতিব, ইমাম ও মুফতিগণ এক সংবাদ সম্মেলনে এ ইচ্ছার কথা জানান। দেশের চলমান রাজনৈতিক সহিংসতা নিরসনে উভয় নেত্রীকে ছাড় দেবার মানসিকতা নিয়ে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তারা। প্রাণহানির ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানান আলেম সমাজ। সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী ও ২০ দলীয় নেত্রীর উদ্যেশ্যে খোলা চিঠির অংশ বিশেষ তুলে ধরেণ মাওলানা ফায়েক উদ্দিন। এছাড়া সাংবাদিকদেও প্রশ্নের জবাব দেন মুফতি ইসমাইল, মুফতি রুহুল আমিন। এছাড়া সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মুফতি লুৎফুর রহমান কাসেমি, মাওলানা দেলোয়ার হোসেন, হাফেজ ইসমাইল, মাওলানা জাকারিয়া মাহমুদ, মাওলানা রফিক আহমেদ, হাফেজ মুফতি শরিফুল ইসলাম, মুফতি মালেক প্রমূখ।
প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে লেখা ওলামায়ে কেরামের খোলা চিঠিতে প্রধানমন্ত্রীর সুসাস্থ্য কামনা কওে বলা হয়, বর্তমানে দেশের শোচনীয় পরিস্থিতিতে আলেম সমাজ উদ্বিগ্ন, দেশে মানবাধিকার ভূলুণ্ঠিত, বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড এখন গণ আতংক। নিরপেক্ষ নির্বাচন ব্যাবস্থা আজ গোটা জাতির সর্বোচ্চ প্রত্যাশা। দেশের রাজনৈতিক অস্থিরতা নিরসনে প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে সুনির্দিষ্ট ছয় দফা দাবী জানান প্রবাসের ওলামায়ে কেরাম। প্রথম দফা; বিরোধী জোটের সাথে অর্থবহ সংলাপের মাধ্যমে রাজনৈতিক সংকট থেকে দেশকে রক্ষা করা। দ্বিতীয় দফা; ইনসাফপূর্ন আইনের শাসন ও মানবাধিকার সকলের জন্য সমানভাবে নিশ্চিত করা। তৃতীয় দফা; সুষ্ঠু নির্বাচন ব্যাবস্থা গড়ে তোলে অবিলম্বে নির্বাচনের ব্যবস্থা করা। চতুর্থ দফা; সকল রাজনৈতিক দলের শান্তিপূর্ন কর্মসূচী পালন করার সুযোগ দেয়া। পঞ্চম দফা; মানুষের মত প্রকাশের অধিকার ও গণমাধ্যমের পূর্ণস্বাধীনতা ফিরিয়ে দেয়া এবং ষষ্ঠ দফা; বন্ধ গণমাধ্যম খুলে দেয়ার পাশাপাশি বন্দী সাংবাদিকদেও মুক্ত করা। খোলা চিঠিতে ২০ দলীয় জোট নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কাছে বেশ কয়েকটি বিষয়ের অঙ্গীকার আশা করেন সম্মিলিত ওলামায়ে কেরাম। খোলা চিঠিতে ওলামায়ে কেরাম উল্লেখ করেন, আপনার দল ও জোটের সুস্পষ্ট ঘোষণা দিতে হবে, শুধু আপনার দলের ক্ষমতার জন্য আজকের এ আন্দোলন নয়, এই আন্দোলন হবে শান্তিপূর্ন গণ আন্দোলন, যার উদ্দেশ্য হবে সকলের জন্য ন্যায় বিচার, সুশাসন, দলনিরপেক্ষ ভোট ব্যবস্থা ও দুর্নীতিমুক্ত গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা। বেগম জিয়াকে জাতীয় সংলাপ আহ্বান করে সংকট উত্তরণে সর্বোচ্চ ছাড় দেবার মানসিকতা দেখাবার আহ্বান জানানো হয়েছে ওই খোলা চিঠিতে। শুধু তাই নয় সংলাপের প্রস্তাব দিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখার কথাও বলেছেন তারা। প্রশ্নোত্তর পর্বে ওলামায়ে কেরাম সরকারকে সতর্ক করে বলেন, গণমানুষের আন্দোলনকে আইএসের সাথে সম্পৃক্ত করার পরিণাম শুভ হবে না। আন্তর্জাতিক উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর আস্থা না থাকলে প্রয়োজনে দেশের শীর্ষ ওলামায়ে কেরামদের সাথে নিয়ে তারা সংকট নিরসনে সমঝোতার জন্য অগ্রসর হবেন বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। দ্রুত সংকট নিরসন না হলে নিউ ইয়র্কের মুসল্লিদের নিয়ে বাংলাদেশ কন্সুলেট, জাতিসংঘ ও স্টেইট ডিপার্টমেন্টের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশের কর্মসূচী ঘোষণা দেয়া হবে বলে জানান ওলামায়ে কেরাম। সংবাদ সম্মেলনে সাম্প্রতিক রাজনৈতিক সহিংসতায় নিহত, পিলখানায় নিহত ৫৭ সদস্য ও ভাষা আন্দোলনে নিহতদের স্মরণে দোয়া করা হয়।

You Might Also Like