মাগুরায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী দাউদ নিহত

মাগুরায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দাউদ হোসেন (৪৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি- নিহত দাউদ ‘সন্ত্রাসী’ টাইগার বাহিনীর প্রধান ছিলেন। এ সময় পুলিশের দুই এসআইসহ চার সদস্য আহত হয়েছেন। উদ্ধার করা হয়েছে অস্ত্র-গুলি।

মঙ্গলবার গভীর রাতে সদর উপজেলার ছোট খালিমপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মাগুরার সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) সুদর্শন কুমার রায় জানান, পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী টাইগার বাহিনীর প্রধান দাউদ হোসেনকে মঙ্গলবার রাতে মাগুরা সদর উপজেলার বরইচারা এলাকা থেকে আটক করা হয়। পরে তার স্বীকারোক্তিতে রাত আড়াইটার দিকে ছোট খালিমপুর গ্রামে অস্ত্র উদ্ধারে যাওয়া হয়। এ সময় তার বাহিনীর সদস্যরা তাকে ছাড়িয়ে নিতে পুলিশের ওপর গুলিবর্ষণ করে। এ সময় পুলিশও পাল্টা ১০/১২ রাউন্ড গুলি ছুড়লে পালানোর সময় দাউদ গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়।

তিনি দাবি করেন, এ বন্দুকযুদ্ধে সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মানিক গাইন, উপ-পরিদর্শক (এসআই) মহসিন, পুলিশ কনস্টেবল ইকরামুল ও কনস্টেবল জাহিদ আহত হয়েছেন। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান সুটারগান, একটি পাইপ গানসহ ৩টি দেশীয় অস্ত্র ও ২১ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

নিহত দাউদ হোসেন সদর উপজেলার গৌরিচরণপুর গ্রামের মৃত বাবর আলির ছেলে। তার বিরুদ্ধে মাগুরা, ঝিনাইদহ ও রাজবাড়ী জেলার বিভিন্ন থানায় ৪টি হত্যা, ২টি ডাকাতি, ২টি চাদাঁবাজীসহ ১০টি মামলা রয়েছে বলে জানান সহকারী পুলিশ সুপার সুদর্শন কুমার রায়।

You Might Also Like