পদ্মায় লঞ্চডুবিতে নিহত ৭, নিখোঁজ শতাধিক

পাটুরিয়া ঘাট থেকে দৌলতদিয়া যাওয়ার পথে মাঝ পদ্মায় লঞ্চডুবির ঘটনায় এ পর্যন্ত এক শিশুসহ ৭ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।
রবিবার দুপুর পৌনে ১২টায় এমভি নারগিস নামে সারবাহী একটি কার্গো জাহাজের ধাক্কায় ডুবে যায় ‘এমভি মোস্তফা’ নামের ওই লঞ্চটি।
লঞ্চটিতে শতাধিক যাত্রী ছিলেন বলে জানা গেছে। প্রাথমিকভাবে ৪৫ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে।
পাটুরিয়া নৌপুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবদুল মুকতাদির জানান, এমভি নারগিস নামে সারবাহী একটি কার্গো জাহাজের ধাক্কায় লঞ্চটি মাঝ পদ্মায় ডুবে যায়। যাত্রীদের উদ্ধারে নৌপুলিশের পাশাপাশি রাজবাড়ী ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ও উদ্ধারকারী জাহাজ (আইটি-৮৩৮৯) কাজ করছে।
তিনি জানান, উদ্ধার করার পর এক শিশুকে উপজেলা হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যায়। এছাড়া তিন নারী ও তিন পুরুষের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এদের কারোরই পরিচয় শনাক্ত করা যায়নি।
দুর্ঘটনার পর কার্গো এমভি নারগিসকে আটক করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।
লঞ্চডুবিতে রাজবাড়ী শেরে বাংলা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা অসীমা নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানিয়েছেন তার সহকর্মী ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষক হাফিজুর রহমান।
এদিকে রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক মো. রফিকুল ইসলাম খান ও পুলিশ সুপার তাপতুন নাসরিন ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন।

You Might Also Like