যৌবনের ঘুম বার্ধক্যের স্মৃতি রাখবে টনটনে

অল্পবয়সে শান্তির ঘুম ৭০ টপকে গেলেও স্মৃতি শক্তি টাটকা রাখতে সাহায্য করে। বেলর বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক মাইকেল কে স্কুলিনের গবেষণাপত্র অনুযায়ী, যৌবনে অবিচ্ছিন্ন সময়ের ঘুম মস্তিষ্কে বয়সজনিত স্মৃতি শক্তি হ্রাসকে ঠেকিয়ে রাখে। অল্প বয়সের ‘ডিপ স্লিপ’ বা ‘স্লো (ব্রেন) ওয়েভ স্লিপ’ কোনও নির্দিষ্ট দিনের অভিজ্ঞতা বা স্মৃতিকে বহুদিন পর্যন্ত ঠিকঠাক মনে রাখতে সাহায্য করে। বার্ধক্যে যথাযথ স্মৃতিচারণে সহায়তা করে।

মধ্যবয়সীদের ক্ষেত্রে আবার ঘুমের সময়কাল বৃদ্ধি বা দুপুরের ঘুম স্মৃতিশক্তি বাড়িয়ে তোলে। বয়স বাড়লে ঘুমের সমস্যা কম বেশি প্রায় সব মানুষের মধ্যেই দেখা যায়। এই সময় মস্তিষ্কের যথাযথ কাজের জন্য যৌবন বা কৈশরের জমাটি ঘুম অত্যন্ত কার্যকরী।

১৯৬৭ সাল থেকে গবেষকরা এই নিয়ে গবেষণা চালাচ্ছেন। ২০০ জনের উপর পরীক্ষা চালিয়েছেন তাঁরা। ১৮ থেকে ২৯ বছরকে যৌবন, ৩০-৬০ বছরকে মধ্যবয়স ও ৬০ এর বেশি বয়সকে বার্ধ্যকের আওতায় এনেছেন তারা। এই ২০০জনকে বারবার জিজ্ঞাসা করা হয়েছে দিনে গড়ে তারা কতক্ষণ ঘুমান, ঘুম আসতে কতক্ষণ সময় লাগে, রাতে কতবার তাঁরা ঘুম থেকে ওঠেন এবং সারা দিনে কখন বা কতবার তাদের নিদ্রালু লাগে।

You Might Also Like