ঢাকায় মমতা : মনে হচ্ছে নিজের দেশেই এসেছি

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছে নিজের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে সাংবাদিকদের বলেন, ‘মনে হচ্ছে নিজের দেশে এসেছি। রবীন্দ্রনাথের-নজরুলের বাংলা। একবারেই মনে হচ্ছে না বিদেশ এসেছি।’

এরআগে রাত ৯টা ৫ মিনিটে এয়ার ইন্ডিয়ার একটি ফ্লাইটে হযরত শাহজালাল আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দরে পৌছান মমতা। সেখানে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি বিমানবন্দরের ভিআইপি লাউঞ্জ-১ এ তাকে স্বাগত জানান। পররাষ্ট দপ্তর ও ভারতীয় হাই কমিশনের ঊধ্বতন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

মমতার আনুষ্ঠানিক সফরসঙ্গীরা হলেন- নগর উন্নয়ন মন্ত্রী ফরহাদ হাকিম, পর্যটন মন্ত্রী ব্রাত্য বসু, দীপক অধিকারী এমপি (নায়ক দেব), অভিনেত্রী ও নির্মাতা মুনমুন সেন এমপি, মুখ্য সচিব সঞ্জয় মিত্র, ব্যক্তিগত সচিব (এমএসএমই অ্যান্ড টি) রাজিব সিনহা, মুখ্যমন্ত্রীর সচিব গৌতম সান্যাল, নিরাপত্তা পরিচালক শ্রী বীরেন্দ্র, ডব্লিউআইডিসির ব্যস্থাপনা পরিচালক কৃষ্ণ গুপ্ত, মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয়ের ব্যক্তিগত সচিব কুসুম কুমার দ্বিবেদী, মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয়ের ব্যক্তিগত সচিব স্বরূপ গোস্বামী, অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, পরিচালক গৌতম ঘোষ, সুবোধ সরকার, কল্যাণী কাজী, শিল্পী নচিকেতা চক্রবর্তী, অরিন্দম শীল।

এদিকে ঢাকাস্থ ভারতীয় হাই কমিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ২ দিন আগেই সফরের বিস্তারিত জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, ২১ ফেব্রুয়ারি ভাষা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীর আমন্ত্রণে ১৯-২১ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ সফর করবেন মমতা ব্যানার্জি। তার সফরসঙ্গী হিসেবে আসবেন পশ্চিমবঙ্গের নগর উন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, পর্যটন মন্ত্রী ব্রত্য বসু, সংসদ সদস্য দীপক অধিকারী, মুনমুন সেন, সঞ্জয় মিত্র, প্রসেনজিৎ এবং মুখ্য সচিব ও অন্যান্য কর্মকর্তারা।

এ ছাড়া তার সফরসঙ্গী হিসেবে আরো থাকবেন প্রখ্যাত সাংস্কৃতিক, ব্যবসায়ী ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব। সফরকালে মমতা ব্যানার্জী বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী আয়োজিত চা-চক্রে অংশ নেবেন।

মমতা ব্যানার্জী ভাষা আন্দোলনের বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আয়োজিত অমর একুশে উদযাপন অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। এ ছাড়া তিনি বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করবেন।

মুখ্যমন্ত্রী ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই) ও ইন্ডিয়ান চেম্বার অব কমার্স কোলকাতা (আইসিসি)-এর সহযোগিতায় ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অব ইন্ডাস্ট্রি (আইবিসিসিআই) নেতৃবৃন্দের উদ্দেশ্যে ভাষণ দেবেন।

এ ছাড়া তিনি ভারতীয় হাইকমিশন আয়োজিত এক সংবর্ধনা সভায়ও যোগ দেবেন। ২০১১ সালের মে মাসে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর বাংলাদেশে এটি তার প্রথম সফর।

You Might Also Like