দুই লাখ কৃষকের বিরুদ্ধে মামলা

কৃষি ঋণ পরিশোধ করতে না পারায় ২ লাখ কৃষকের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রায় ১০ হাজার কৃষকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছে। এই ভয়ে কৃষকরা পালিয়ে বেড়াচ্ছে। কৃষকদের হয়রানি থেকে রেহাই দিতে ঋণ পুনঃতফসিল করে মামলা নিষ্পত্তি করতে নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।
রাষ্ট্রায়ত্ত ও বিশেষায়িত ৬টি বাণিজ্যিক ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের (এমডি) সঙ্গে বৈঠক করে সোমবার এ নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলন করে এ সব কথা জানান ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী।
সুর চৌধুরী বলেন, সামান্য ঋণের জন্য ২ লাখের মতো কৃষকের বিরুদ্ধে সার্টিফিকেট মামলা করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রায় ১০ হাজার কৃষকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছে। এ সব কৃষকরা ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বলে জানা গেছে। তাই এ সব কৃষকদের ঋণ পুনঃতফসিল করে তাদের মামলা নিষ্পত্তি করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি যে সব মামলা হয়েছে তা সমঝোতার ভিত্তিতে প্রত্যাহার করে কৃষকদের হয়রানি বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে সামনের দিনে কৃষকদের ঋণ পেতে যাতে কোনো সমস্যা না হয়, সে বিষয়ে পদক্ষেপ নিতেও বলা হয়েছে।
সুর চৌধুরী আরও বলেন, ভবিষ্যতে যাতে কৃষি ঋণ খেলাপি না হয় সে জন্য নজরদারি এবং কৃষকদের মধ্যে সচেতনা বৃদ্ধি করতে বলা হয়েছে। আর যারা ভাল করবে তাদেরকে পুরস্কার দেওয়ার মতো পদক্ষেপ নিতেও বলা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, সম্প্রতি রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে কৃষকরা যে ধরনের ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে তা কাটিয়ে উঠতে বাংলাদেশ ব্যাংক যে কোনো ধরনের সহায়তার প্রয়োজন হলে পদক্ষেপ নেবে।
চলতি অর্থবছরের কৃষি ঋণের লক্ষ্যমাত্রার বিষয়ে তিনি বলেন, প্রথম সাত মাসে লক্ষ্যমাত্রার ৫৫ শতাংশ অর্জিত হয়েছে। বাকি ৫ মাসে লক্ষ্যমাত্র পূর্ণ হবে বলে আশা করি। এমনকি এটি লক্ষ্যমাত্রার বেশিও হতে পারে।

You Might Also Like