ডায়াবেটিস নিরাময়ে ‘স্মার্ট’ ইনসুলিন

টাইপ-১ ডায়াবেটিসে সাধারণত মানবদেহের ইনসুলিন তৈরির ক্ষমতা ধ্বংস হয়ে যায়। নির্দিষ্ট পরিমাণ ইনসুলিন না নিলে বিপজ্জনকভাবে বেড়ে যায় ডায়াবেটিস। আবার বেশি পরিমাণে নিলে অনেক সময় রক্তে সুগারের মাত্রা কমে যায়। সেজন্য টাইপ-১ ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের বারবার সুগার পরীক্ষা করতে হয় এবং পরীক্ষার ফল অনুসারে ইনজেকশনের মাধ্যমে ইনসুলিন নিতে হয়। বিষয়টি কিছুটা জটিল এবং বিরক্তিকর।

অথচ সুস্থভাবে বেঁচে থাকতে এর বিকল্প নেই। বিষয়টি ভাবাচ্ছিল চিকিৎসা বিজ্ঞানীদের। এজন্য গবেষণাও কম হয়নি; অবশেষে এ সমস্যার সমাধানে কাঙ্ক্ষিত সফলতা লাভ করলেন বিজ্ঞানীরা।

চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা বলছেন, টাইপ-১ ডায়াবেটিসে ভোগা রোগীদের জন্য সুখবর নিয়ে আসছে ‘স্মার্ট’ ইনসুলিন। এটি ব্যবহার করলে দিনে কয়েকবার সুগার পরীক্ষা ও ইনসুলিন নেওয়ার ঝামেলা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে। এমনকি এটি দিনে বা সপ্তাহে একবার নিলেই কাজ চলবে। রোগীর রক্তে বহমান থেকে এটি প্রয়োজনের সময় ইনসুলিন নির্গমন করবে।

বিশ্বে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীদের শতকরা ১০ ভাগ টাইপ-১ ডায়াবেটিসে ভুগছেন। তাদের জন্য ‘স্মার্ট’ ইনসুলিন বৈপ্লবিক পরিবর্তন নিয়ে আসবে বলে দাবি করছেন চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা।

ইঁদুরের ওপর প্রয়োগে এই ‘স্মার্ট’ ইনসুলিনের কার্যকারিতা পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। তবে টাইপ-১ ডায়াবেটিসের চিকিৎসায় প্রয়োগের আগে সীমিত আকারে কয়েক বছর মানুষের ওপর এর কার্যকারিতা পরীক্ষা করতে চান তারা।

এই ‘স্মার্ট ইনসুলিন’ আসলে সাধারণ ইনসুলিনের রাসায়নিকভাবে পরিবর্তিত রূপ। এর শেষ মাথায় অতিরিক্ত এক জোড়া অণু থাকে যা রক্তের প্রোটিনের সঙ্গে ইনসুলিনটিকে সংযুক্ত করে। প্রোটিনের সঙ্গে যুক্ত থাকা অবস্থায় এটি বন্ধ থাকে, তবে রক্তে সুগারের মাত্রা বেড়ে গেলে এটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে খুলে যায় এবং ইনসুলিন নির্গমন করে।

যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) বিজ্ঞানীরা স্মার্ট ইনসুলিনের আবিষ্কারক।

এমআইটির ওই গবেষক দলেন অন্যতম সদস্য ডা. ড্যানি চে বলেন, আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীদের জীবন সহজ করা। ইনসুলিন থেরাপির ক্ষেত্রে এ আবিষ্কার এক গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি।

গবেষণা কাজে অর্থ সহায়তাকারী প্রতিষ্ঠান ‘জুভেনাইল ডায়াবেটিস রিসার্চ ফাউন্ডেশনের’ প্রধান নির্বাহী কারেন অ্যাডিংটন বলেন, ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখা রীতিমতো একটি যুদ্ধ। ‘স্মার্ট’ ইনসুলিন এ সমস্যার সমাধান দিতে পারে। দিনে বা সপ্তাহে মাত্র একবার ইনসুলিন নিয়ে শর্করার মাত্রা বজায় রাখার এ সুযোগ সত্যিই আনন্দদায়ক। সূত্র: বিবিসি

You Might Also Like