গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে কুপিয়ে হত্যা

নওগাঁর পতœীতলায় ডাকাতির মামলার এক আসামির ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
শুক্রবার উপজেলার নজিপুর পৌর এলাকার রংধনু সিনেমা হলের পিছনের একটি বাড়িতে হাফিজুর রহমান হাফিজের (৪৫) লাশ পাওয়া যায়।
পুলিশ বলছে, বৃহস্পতিবার রাতে ওই বাড়ির এক গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা করায় হাফিজকে তার স্বামী কুপিয়ে হত্যা করেছে।
হাফিজ নজিপুর পৌর এলাকার চক জয়রাম গ্রামের সামসুদ্দিন আহমেদ সাধুর ছেলে।
পতœীতলা থানার ওসি আব্দুর রফিক জানান, রাতের কোনো এক সময় হাফিজ জনৈক দুলাল হোসেনের ওই বাড়িতে ঢুকে তার স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে।
স্ত্রীর চিৎকারে দুলাল বিষয়টি জানতে পেরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হাফিজকে হত্যা করে। এরপর লাশ ঘরে রেখে রাতেই স্বামী-স্ত্রী পালিয়ে যান।
সকালে স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।
ওসি রফিক আরও জানান, নিহত হাফিজের বিরুদ্ধে পতœীতলা থানায় ডাকাতি, ছিনতাই ও অস্ত্র আইনে বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। ওই বাড়িতে ঢোকার আগে হাফিজ নেশা করেছিল বলে প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা গেছে।

You Might Also Like