ঢাকা আসছেন ভারতের পররাষ্ট্র সচিব

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গত মাসের শেষদিকে সুজাতা সিংকে সরিয়ে জয়শঙ্করকে পররাষ্ট্র সচিব করে নরেন্দ্র মোদীর সরকার। ভারতের শীর্ষ কূটনীতিকের দায়িত্ব নেওয়ার পর ঢাকা সফরেই বাংলাদেশের সঙ্গে প্রথম আনুষ্ঠানিক যোগাযোগ হচ্ছে তার।

শুক্রবার নয়া দিল্লিতে পররাষ্ট্র সচিবের এ সফরের ঘোষণা দিয়ে নরেন্দ্র মোদী বলেন, “সার্ক দেশগুলোর সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক আরো জোরদার করতে শিগগিরই আমরা নতুন পররাষ্ট্র সচিবকে ‘সার্ক যাত্রায়’ পাঠাচ্ছি।

জয়শঙ্করের ঢাকা সফর সম্পর্কে অবহিত করতে সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেন মোদী। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথোপকথনে ক্রিকেট বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের সাফল্যও কামনা করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, দুই দেশের মধ্যে ঝুলে থাকা দুটি বিষয় আগামী পার্লামেন্ট অধিবেশনেই মিটিয়ে ফেলতে চায় ভারত সরকার। এ বার্তাই বাংলাদেশ সরকারকে পৌঁছে দিতে জয়শঙ্করকে বলেছেন নরেন্দ্র মোদী।

ভারত-বাংলাদেশ স্থল সীমান্ত চুক্তি কার্যকরে দেশটির পার্লামেন্টে এ সংক্রান্ত বিল পাসের অপেক্ষায় রয়েছে বাংলাদেশ। তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তিও বাংলাদেশের দীর্ঘ দিনের দাবি।

কংগ্রেস ক্ষমতায় থাকাকালে ২০১১ সালে ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের ঢাকা সফরের সময় তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তি স্বাক্ষরের কথা থাকলেও শেষ মুহূর্তে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আপত্তির মুখে তা আটকে যায়।

সে সময় স্থল সীমান্ত চুক্তি কার্যকরেরও বিরোধিতা করেছিলেন মমতা। তবে গত বছর ভারতের লোকসভা নির্বচনে জয়ী হয়ে বিজেপি সরকার গঠনের পর অবস্থান পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়েছেন মমতা।

You Might Also Like