খাবার ফুরিয়ে এসেছে গুলশান কার্যালয়ে

কোনো খাবার আসছে না টানা দু’দিন ধরে। আসছে না খাবার পানিও। মজুদ শুকনো খাবারেই তো দিন দু’য়েক চললো। এবার তাও শেষ হওয়ার পথে।
রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে অবস্থানরত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তাই পড়েছেন চরম খাদ্য-সঙ্কটে। বিএনপির দাবি অন্তত এমনই।
বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের কর্মকর্তা শামসুদ্দিন “িার বৃহস্পতিবার (১২ ফেব্র“য়ারি) বিকেল পৌনে ৪টায় খাবার ও পানির মজুদ ফুরিয়ে আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
তিনি বলেন, বুধবার (১১ ফেব্র“য়ারি) থেকে আমাদের এখানে কোনো খাবার বা পানি ঢুকতে দেওয়া হয়নি। অবরুদ্ধ অবস্থায় আমরা না খেয়ে আছি। কাল ম্যাডাম (খালেদা জিয়া) নিজের কাছে থাকা শুকনো খাবার, মুড়ি, খেজুর আমাদের দিয়ে গেছেন। সামান্য সেই খাবার খেয়েই আছি।
অফিস স্টাফ ও দলের বিশ্বস্ত কর্মী মিলিয়ে অর্ধশতাধিক মানুষ খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে আছেন জানিয়ে তিনি বলেন, দু’দিন তো মুড়ি-পানি খেয়ে চললো। এরপর সাপ্লাই না এলে না খেয়েই থাকতে হবে।
বিএনপির দাবি, প্রতিদিনের মতোই বুধবার রাতে খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে খাবার দিতে আসা ভ্যান ফিরিয়ে দেয় পুলিশ। ওই ভ্যানে ১২০ প্যাকেট খাবার ছিলো।
মূলত চেয়ারপারসনের অফিস স্টাফ ও সেখানে থাকা দলের কিছু বিশ্বস্ত কর্মী ছাড়াও দায়িত্বরত সংবাদ কর্মীদের এসব খাবার দেওয়া হতো। কিন্তু খালেদা জিয়ার খাবারের রসদ কোন পর্যায়ে রয়েছে তা স্পষ্ট হওয়া যায়নি।

You Might Also Like