ভূত তাড়াতে গিয়ে গৃহবধূর সর্বনাশ

ভূত তাড়ানোর নামে এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করেছে এক মন্দির পুরোহিত। এ ব্যাপারে মঙ্গলবার থানায় অভিযোগ দায়েরের পর পুলিশ তাকে খুঁজছে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের ভোপালের নিশাথপুরা থানা এলাকায়। খবর ভারতীয় অনলাইন দৈনিকের।

 

খবরটিতে বলা হয়, স্থানীয় সিঙ্গারচোলি নামক একটি মন্দিরে প্রতিদিন নিয়মিত যেতেন ওই গৃহবধূ। মাসখানেক আগে মন্দিরের পুরোহিত সন্তোষ কুমার কৌশিক ওই গৃহবধূকে বলে সে অশুভ আত্মার খপ্পরে পড়েছে। এ কারণে বিশেষ পূজা আয়োজনের পরামর্শও দেয় ওই পুরোহিত। এ সময়  সে নিজেই এই পূজা সম্পন্ন করবে বলেও জানায়।

 

পরিকল্পনা অনুযায়ী গৃহবধূর বাড়িতে যায় পুরোহিত। এরপর তার স্বামীকে বাইরে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেয়। পুলিশে দেওয়া অভিযোগে গৃহবধূ জানায়, পুরোহিত যখন পূজা করছিলেন তখন তিনি আচ্ছন্ন হয়ে পড়েন। এরপর যখন জ্ঞান ফেরে নিজেকে নগ্ন অবস্থায় দেখতে পান এবং যৌনাঙ্গে ব্যথা অনুভব করেন। এরপর পুরোহিত তাকে হুমকি দেয় সে যদি ঘটনার কথা কাউকে জানায় খারাপ ফল ভোগ করতে হবে।

 

গৃহবধূর স্বামী বাড়ি ফিরে এলে পুরোহিতের এই কাণ্ডর কথা জানায়। পরে ওই দম্পতি থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করে। তাদের অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা করা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

You Might Also Like