আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে হারলো বাংলাদেশ

বিশ্বকাপ মিশন শুরুর আগেই বাংলাদেশকে লজ্জা দিল দুর্বল আয়ারল্যান্ড। শেষ ওয়ার্মআপ ম্যাচে বৃহস্পতিবার তাদের কাছে টেস্ট খেলুড়ে টাইগাররা হেরে গেছে ৪ উইকেটের ব্যবধানে।

বৃহস্পতিবার সিডনির ব্ল্যাকটাউন অলিম্পিক পার্ক ওভালে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে মাত্র ১৮৯ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ। জবাবে ১৯ বল হাতে রেখে ৬ উইকেট হারিয়ে প্রয়োজনীয় ১৯০ রান তুলে নেয় আয়ারল্যান্ড।

দলের এই জয়ে অ্যান্ডি বিলবিরানি অপরাজিত ৬৩ রান করেন। এছাড়া বড় ভূমিকা রাখে ইসি জয়েসের ৪৭, পোর্টারফিল্ডের ২৪ ও কেভিন ও’ ব্রায়েনের ২৩ রান।

বাংলাদেশ ৭৮ রানে প্রতিপক্ষের চার উইকেট তুলে নিতে সক্ষম হলেও পঞ্চম উইকেটে ইসি জয়েস আর অ্যান্ডি বিলবিরানির ৫৯ রানের জুটি ব্যাকফুটে ঠেলে দেয়। এরপর জয়েসকে ৪৭ রানে তাইজুল ইসলাম ফেরাতে পারলেও বিলবিরানি একাই দলকে জয়ের বনএর নিয়ে যেতে থাকেন।

তাকে যোগ্য সহায়তা দেন কেভিন ও’ ব্রায়েন। ১৬ বলে চার বাউন্ডারিতে তিনি ২৩ রান করলে জয় কেবলই সময়ের অপেক্ষা হয়ে দাঁড়ায় আয়ারল্যান্ডের জন্য। শেষ পর্যন্ত ৪৭তম ওভারের পঞ্চম বলে জয় তুলে নেয় তারা। ৬৩ রানের ইনিংসে বিলবিরানি বল মোকাবেলা করেছেন ৭৯টি, যাতে ছয়টি বাউন্ডারি।

বাংলাদেশের পক্ষে তাইজুল ইসলাম দুটি এবং সাকিব, তাসকিন, নাসির ও আল আমিন বাকি চারটি উইকেট তুলে নেন।

টস হেরে বাংলাদেশ ৪৮.২ ওভারে ১৮৯ রানে অলআউট হয়ে যায়। গড় রান রেট ৩.৯১।

বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ রান করেন সৌম্য সরকার। ৫১ বল খেলে দুটি চারের সাহায্যে তার রান ৪৫। মুশফিক ৩৪ বল খেলে ২৬ ও এনামুল ৭২ বল খেলে ২৫ রান নেন। অতিরিক্ত খাত থেকে আসে ২৫ রান।

এছাড়া দুই অঙ্গের ঘরে পৌঁছেছেন মাশরাফি (২২) ও সাব্বির (২০)। বাংলাদেশের পক্ষে ওপেনার তামিম ৪, মমিনুল ৮, সাকিব ৮, নাসির ৬ রান করেছেন। তাইজুল ও তাসকিন দুজনই শূন্য রানে আউট হয়েছেন।

বাংলাদেশ ইনিংসে কোনো ছক্কার মার নেই। বাউন্ডারি আছে মাত্র ছয়টি। সমান দুটি করে নিজেদের মধ্যে এগুলো ভাগ করে নিয়েছেন সৌম্য সরকার, মুশফিক ও সাব্বির রহমান।

বাংলাদেশ দলের পক্ষে সর্বোচ্চ রান আসে চতুর্থ উইকেটে আনামুল হক ও সৌম্য সরকারের ব্যাট থেকে। ওই সময়েই যা একটু প্রতিরোধ দেখা গেছে। তারা দুজনে গড়েন ৫৮ রানের জুটি।

এরপর ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে মুশফিকুর রহিম ও সাব্বির রহমান যোগ করেন ৪৪ রান। এর বাইরে ম্যাচে বলার মত তেমন কোনো অর্জন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের নেই। আয়ারল্যান্ডের হয়ে ৩টি করে উইকেট নেন জন মুনি ও ম্যাক্স সোরেনসেন।

আগের ম্যাচে শক্তিশালী পাকিস্তানের সঙ্গে লড়ে হারায় বাংলাদেশকে নিয়ে যে সম্ভাবনা উঁকি দিয়েছিল, তা আবারো মিইয়ে গেল।

আর আগেভাগে অস্ট্রেলিয়ার কন্ডিশনের সঙ্গে খাপ খাওয়াতে উড়াল দেওয়া বাংলাদেশ তাদের সবক’টি প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে পরাজিত হলো। প্রথম দুটি ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া একাদশের সঙ্গে হারে।

আর পাকিস্তানের সঙ্গে হারলেও সেটি ছিল লড়াই করে মর্যাদার হার। কিন্তু আয়ারল্যান্ডের কাছে যেভাবে পরাজিত হলো, তাতে বিশ্বকাপে দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠার যে স্বপ্ন বাংলাদেশের তা নিয়ে এখন প্রশ্নই থেকে যাচ্ছে।

You Might Also Like