যুক্তরাষ্ট্রে স্ত্রী-সন্তানদের হত্যার পর পাষণ্ডের আত্মহত্যা

যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টার একটি বাড়ি থেকে শনিবার পাঁচ জনের গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই বাড়ি থেকে আরো দুই শিশুকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতরা একই পরিবারের সদস্য বলে মনে করছে পুলিশ।

ডগলাস কাউন্টি শেরিফের নিরাপত্তা কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট গ্লেন ড্যানিয়াল বলেন, হত্যাকাণ্ডের খবর পেয়ে পুলিশ আটলান্টার দুই তলা বিশিষ্ট ওই বাড়িতে পৌঁছায়।

তিনি বলেন, একজন লোক ওই বাড়িতে আসেন এবং তার প্রাক্তন স্ত্রী ও সন্তানদের ওপর গুলিবর্ষণ করেন। পুলিশ ঘটনা তদন্ত করে তাদের পুরো পরিচয় নিশ্চিত করার কাজ করছে।’

ড্যানিয়াল বলেন, বন্দুকধারী ওই হত্যাকাণ্ড চালানোর পর নিজের গুলিতে আহত হয়ে মারা যান বলে মনে করা হচ্ছে। কেন তাদের বিচ্ছেদ হয়েছিল এবং এ ব্যাপারে এর আগে তারা পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন কি না, তাৎক্ষণিকভাবে তার জানা নেই।

তিনি বলেন, ‘২০ বছর ধরে আমি এখানে কর্মরত রয়েছি। এর আগে এ রকম কোনো ঘটনা এখানে ঘটেনি। বিষয়টি মর্মান্তিক।’

ড্যানিয়াল বলেন, প্রতিবেশীরা গুলিবর্ষণ করতে দেখেছেন ও শব্দ শুনেছেন। উদ্ধারকর্মীরা আসার আগ পর্যন্ত প্রতিবেশীরা ভুক্তভোগীদের সাহায্যে এগিয়ে এসেছিলেন।’

হতাহতদের ও হামলাকারীর নাম প্রকাশ করা হয়নি। ওই বাড়িরই আরেকটি অ্যাপার্টমেন্টে বসবাসরত কেনয়া বায়েহি বলেন, গোলাগুলির শব্দ শোনার পর তিনি ফুলের বাগানে আশ্রয় নেন। ওই পরিবারের কাউকে তিনি চেনেন না। তবে অনেক সময় বাচ্চাদের বাড়ির সামনে খেলা করতে দেখেছেন তিনি।

তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া ।

You Might Also Like