সৌদিতে ৬৫ ভাগ কিশোরী ধূমপান করে

সৌদি আরবের কিশোরীরা ধূমপানে আগ্রহী হয়ে উঠছে। সম্প্রতি এক সমীক্ষায় দেয়া যায়, মাধ্যমিক পর্যায়ের ৫৬ ভাগ ছাত্রীই ধূমপান করে থাকে। কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীদের মধ্যে এ সংখ্যা ৪৫ ভাগ।

রোববার আরব নিউজে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

পত্রিকাটি জানায়, সম্প্রতি জেদ্দার কিং আবদুল আজিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন বিভাগ দেশের স্কুল কলেজ পর্যায়ের ছাত্রীদের মধ্যে একটি জরিপ চালায়। এতে দেখা যায়, দেশের স্কুলছাত্রীদের মধ্যে ধূমপানের প্রবণতা আশঙ্কাজনক হারে বেড়েছে। এটি সৌদি নারীদের স্বাস্থ্যের জন্য দীর্ঘমেয়াদি হুমকি হয়ে দেখা দিতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এর আগে নাজরান বিশ্ববিদ্যালয়ের জরিপে দেখা গিয়েছিল, সৌদির এক তৃতীয়াংশ জনগোষ্ঠী নিয়মিত ধূমপান করে থাকে। ধূমপায়ীদের এ সংখ্যা বিচারে উপসাগরীয় দেশগুলোর মধ্যে সৌদির অবস্থান দুই নম্বরে। এসব দেশের সরকারগুলো ধূমপায়ীদের সংখ্যা কমিয়ে আনার জন্য নানা পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। সৌদি আরবসহ কয়েকটি দেশ ইতিমধ্যে সিগারেটের দাম ২শ ভাগ পর্যন্ত বাড়িয়ে দিয়েছে। কিন্তু এসব পদক্ষেপ যে তেমন ফলপ্রসূ হচ্ছে না তার প্রমাণ কিং আবদুল আজিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের এ জরিপ। সৌদি আরবের কিশোরী মেয়েরাও এখন নিয়মিত ধূমপান করছে।

পত্রিকাটি বলছে, দেশের বিভিন্ন সোস্যাল মিডিয়ায় প্রচারিত পশ্চিমা সংস্কৃতি বিশেষ করে ই-সিগারেটের ব্যাপক প্রসারের কারণেই তারা এতে প্রভাবিত হচ্ছে।

সৌদি আরবের নাগওয়া মুসা নামের এক মা মনে করেন, বাড়িতে বাবা-মা ছেলেমেয়েদের প্রতি যথেষ্ট মনোযোগ না দেয়ার কারণেই তারা ধূমপানে অভ্যস্ত হয়ে উঠছে। তার নিজের রয়েছে দুটি কিশোরী মেয়ে। তিনি বলেন, অভিভাবকদের শিশুদের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপন করা যাতে তারা সবকিছু তাদের সঙ্গে শেয়ার করতে পারে।

You Might Also Like