যেকোনো উপায়ে দমন করুন, দায়িত্ব আমার: পুলিশকে প্রধানমন্ত্রী

দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ ও জনগণের নিরাপত্তা বিধানে প্রয়োজনে যেকোনো ব্যবস্থা নিতে পুলিশ বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

হরতাল-অবরোধের নামে চলমান নাশকতা যেকোনো উপায়ে দমনের জন্য পুলিশ বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, “এখানে কোনো দ্বিধা-দ্বন্দ্ব নাই, কোনো চিন্তা নাই। যা কিছু হোক সে দায়িত্ব আমি নেবো।”
বুধবার সকালে নিজ কার্যালয়ে পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে মত বিনিময়ে প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশ দেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, “মানুষের জানমালের নিরাপত্তা আপনাদের দিতেই হবে। আর সেটা দেয়ার জন্য যত কঠিন কাজ হোক সেটা আপনারা নির্দ্বিধায় করে যাবেন; অন্তত এইটুকু লিবার্টি আমি আপনাদের দিচ্ছি।”
তিনি বলেন, “আন্দোলনের নামে যা চলছে এটা সম্পূর্ণভাবে সন্ত্রাসী ও জঙ্গিবাদী কর্মকাণ্ড। এই সন্ত্রাসী, জঙ্গিবাদী কর্মকাণ্ড দমনের জন্য যখন যেখানে যা করা প্রয়োজন আপনারা তাই করবেন। কারণ মানুষ সেটা আশা করে।”
শেখ হাসিনা বলেন, “দেশের মানুষ এখন অতিষ্ঠ হয়ে গেছে। তারা আশা করে ‘কঠোর হস্তে’ এসব সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড বন্ধ করা হবে।”
এর আগে নিজেদের সমস্যার কথা জানান পুলিশ কর্মকর্তারা। পাশাপাশি নিজেদের পদমর্যাদা ও বেতন-ভাতা বাড়ানোর দীর্ঘ দিনের দাবি পূরণ হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।
ঢাকা মহানগরের আরো কমপক্ষে তিনটি পুলিশ লাইন নির্মাণের প্রয়োজনীয়তা এবং মাঠপর্যায়ের অপরাধ মোকাবেলায় পুলিশে জনবল বাড়ানো কথাও বলেন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি চেয়ারম্যান তার সন্তান হারানোর ব্যথা বুঝতে পারছেন। কিন্তু এটা দুভার্গ্য যে তিনি এখনও তার দলের লোকদের পেট্রোলবোমা হামলায় প্রতিদিন স্বজন হারানো মানুষের বেদনা ও আর্তনাদ বুঝতে পারছেন না।

You Might Also Like