কোকোর দাফন নিয়ে সরকার মন্দ দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে না: নজরুল ইসলাম

বনানী সামরিক কবরস্থানে আরাফাত রহমান কোকোর মরদেহ দাফনের অনুমতি না দেওয়ার মতো ‘মন্দ দৃষ্টান্ত’ সরকার স্থাপন করবে না বলে মনে করছে বিএনপি। দলটির মতে সাবেক সেনাপ্রধান ও সামরিক কর্মকর্তার ছেলে হিসেবে কোকোকে সামরিক কবরস্থানে দাফন করা যেতে পারে।
আজ রাত সাড়ে আটটায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গুলশানের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান এসব কথা বলেন।
কোকোর লাশ সামরিক কবরস্থানে দাফনের অনুমতি নেওয়া হয়েছে কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘স্বাভাবিকভাবে সেনাপ্রধানের ছেলে হিসেবে উনি প্রাপ্য। আমরা ডেথ সার্টিফিকেট ও ছবি দিয়ে নিয়ম অনুযায়ী আবেদন করেছি। আশা করি আমাদের এ আবেদন গৃহীত হবে। না হওয়ার মতো মন্দ দৃষ্টান্ত স্থাপন হবে না।’
নজরুল ইসলাম খান আরও বলেন, আরাফাত রহমান কোকোর মরদেহ আগামীকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছবে। সেখানে তাঁর পরিবারের সদস্য ও বিএনপির একটি উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধিদল মরদেহ গ্রহণ করবে। সেখান থেকে মরদেহ বিএনপির চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে আনা হবে। গুলশান কার্যালয়ে কোনো দলীয় নেতা-কর্মী আসতে পারবেন না। সেখানে শুধু তাঁর পরিবারের সদস্যরা থাকবেন, শ্রদ্ধা জানাবেন। এরপর বিকেল চারটায় মরদেহবাহী গাড়ি জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে গিয়ে পৌঁছাবে। সেখানে বাদ আসর তাঁর জানাজা হবে। এরপর সর্বসাধারণের দেখার জন্য কিছুক্ষণ সেখানে মরদেহ রাখা হবে। পরে বনানী সামরিক কবরস্থানে তাঁর মরদেহ নেওয়া হবে। সেখানেই তাঁর দাফন সম্পন্ন হবে।
বিএনপিসহ সব রাজনৈতিক দলমতের লোকদের আরাফাত রহমান কোকোর জানাজায় অংশ নেওয়ার আহ্বান জানান নজরুল ইসলাম খান। তিনি বলেন, তিনি কোনো রাজনৈতিক দলের সদস্য ছিলেন না। দলমত–নির্বিশেষে সবাই তাঁর জানাজায় আসবেন।
তবে বিএনপির চলমান কর্মসূচি প্রত্যাহার-সংশ্লিষ্ট প্রশ্নের জবাব দেননি নজরুল ইসলাম খান।

You Might Also Like