রুবেলের জামিনের বিরোধিতা করেনি রাষ্ট্রপক্ষ

চিত্রনায়িকা নাজনীন আক্তার হ্যাপীর মামলার আসামি জাতীয় দলের ক্রিকেটার রুবেল হোসেনের জামিন আবেদনে রাষ্ট্রপক্ষ থেকে কোনো বিরোধিতা করা হয়নি।
নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে করা এই মামলায় রুবেলকে জামিন দিয়ে দেওয়া বিচারকের আদেশেও তা উল্লেখ করা হয়েছে।
বিরোধিতা না করার বিষয়ে হ্যাপীর পক্ষে নিজস্ব আইনজীবী থাকাকে কারণ হিসেবে দেখিয়েছেন ঢাকা মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আব্দুল্লাহ আবু।
জামিন আবেদনের শুনানির পর রোববার রুবেলের মুক্তির আদেশ দেন ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক কে এম ইমরুল কায়েস। লিখিত ওই আদেশে সোমবার প্রকাশ হয়েছে।
আদেশে বলা হয়, “প্রসিকিউশন পক্ষ দরখাস্তকারী আসামি (রুবেল হোসেন) বিশ্বকাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের একজন মনোনীত খেলোয়ার বিধায় জাতীয় স্বার্থে ও দেশের ভাবমূর্তি রক্ষার্থে তার জামিনের বিরোধিতা করেন নাই।”
জাতীয় দলের পেসার হিসেবে আসন্ন বিশ্বকাপ ক্রিকেটে খেলার জন্য ১৫ জনের বাংলাদেশ দলে রয়েছেন পেসার রুবেল। কারাগারে যাওয়ার পর তার খেলা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিলেও রোববার মুক্তির পর অনুশীলনে ফিরেছেন তিনি।
রোববার শুনানির সময় ঢাকা মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আব্দুল্লাহ আবু, অতিরিক্ত পিপি শাহ আলম তালুকদারসহ অন্য সরকারি আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ঢাকা মহানগর পুলিশের অপরাধ তথ্য ও প্রসিকিউশনের সহকারী কমিশনার আমিনুর রহমান।
বিরোধিতা না করার কারণ জানতে চাইলে পিপি আব্দুল্লাহ আবু সাংবাদিকদের বলেন, “যদিও এই মামলাটি পুলিশ কেস, কিন্তু বাদীপক্ষে ব্যক্তিগত আইনজীবী থাকায় আমরা কোনো বক্তব্য রাখিনি।”
তবে প্রসিকিউশন পক্ষে সহকারী পুলিশ কমিশনার আমিনুর রহমান কথা বলেছেন বলে জানান তিনি।
তবে সহকারী পুলিশ কমিশনার আমিনুর রহমান সাংবাদিকদের জিজ্ঞাসায় বলেন, তিনি কোনো বক্তব্য রাখেননি।
এই বিষয়ে হ্যাপীর ব্যক্তিগত আইনজীবী তুহিন হাওলাদার বলেন, “রাষ্ট্রপক্ষ জামিনের বিরোধিতা না করে পেশাগত দায়িত্বে অবহেলা করেছেন।”
অভিনেত্রী হ্যাপী গত ১৩ ডিসেম্বর ক্রিকেটার রুবেল হোসেন বিরুদ্ধে মামলা করেন। তিনি দাবি করেন, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তুলেছিলেন রুবেল, কিন্তু পরে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানান।

You Might Also Like