হাসিনার বিদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে : তারেক রহমান

বিএনপির সিনিয়র ভাইস  চেয়ারম্যান তারেক রহমান বলেছেন, অবৈধ  শেখ হাসিনা সরকারের বিরুদ্ধে ২০ দলীয়  জোট  নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার আহ্বানে মঙ্গলবার থেকে সারাদেশে আন্দোলন শুরু হয়েছে। পরবর্তী ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত এ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে। চলমান এ আন্দোলনের গন্তব্য গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার, শেখ হাসিনার বিদায় এবং নিরপেক্ষ নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন।

বুধবার লন্ডন থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে তিনি আন্দোলনরত নেতাকর্মীদের এ আহ্বান জানান।

যে কোনো মূল্যে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের এ আন্দোলন অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান।

বিবৃতিতে সকল বাধা উপেক্ষা করে বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোটের সারাদেশে জোরদার আন্দোলন অব্যাহত রাখার জন্য তিনি আন্দোলনরত সকলকে ধন্যবাদ জানান। একইসঙ্গে এ আন্দোলনে কষ্ট স্বীকার করার জন্য তিনি দেশবাসীকেও অভিনন্দন জানান।

তিনি বলেন, এই আন্দোলন শুধুমাত্র বিএনপি কিংবা ২০ দলীয় জোটেরই নয় এ আন্দোলনের পক্ষে দেশের গণতন্ত্রকামী প্রতিটি মানুষের সমর্থন রয়েছে।

তারেক রহমান বলেন, গণবিরোধী জনসমর্থনহীন এ সরকার আন্দোলনে প্রচণ্ড ভয় পায়। এর প্রমাণ ২০ দলীয় জোট নেত্রী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে গত চারদিন থেকে তার গুলশানের কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সারাদেশে হয়রাণী মুলকভাবে গ্রেফতার করা হয়েছে বিএনপি এবং জোটের বহু নেতাকর্মীকে। পাশাপাশি অনেককে হয়রাণী করা হচ্ছে।

নয়াপল্টনে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় অফিসে তালা লাগিয়ে দেয়া হয়েছে। শেখ হাসিনার পেটোয়া বাহিনী এবং তার দলের সন্ত্রাসীদের কারণে দেশের কোনো জেলায় বিএনপি ও ২০ দলীয় জোটের নেতাকর্মীরা তাদের অফিসে বসে রাজনৈতিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারছে না। এমনকি গণমাধ্যমে আমার বক্তব্য প্রচারেও সরকার বাধা দিচ্ছে। তাদের ধারণা এভাবেই আন্দোলন দমন করা যাবে।

বিবৃতিতে তারেক রহমান অভিযোগ করে বলেন, আন্দোলনকারীদের দমনের পাশাপাশি সরকার মিডিয়াকেও কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করছে। সত্য খবর প্রকাশে বাধা দেয়া হচ্ছে। সত্য প্রচারের দায়ে গ্রেফতার করা হয়েছে ইটিভি’র চেয়ারম্যান আব্দুস সালামকে। কোনো কোনো মিডিয়াকে সরকারের পক্ষে লিখতে বাধ্য করা হচ্ছে। তারেক রহমান অন্দোলনকারীদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেন, আওয়ামী মিডিয়া নানা রকম গুজব ছড়াচ্ছে। জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে। তিনি বলেন, যেসব পত্রিকায় আন্দোলনের ব্যাপারে নেতিবাচক রিপোর্ট প্রচার করছে অবশ্যই ধরে নিতে হবে প্রকৃত চিত্র বিপরীত।

তারেক রহমান দল ও জোটের সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের প্রতি সকল ভয়কে জয় করে গণতন্ত্র বিরোধী খুনী ও মিথ্যাবাদী হাসিনা সরকারের বিরুদ্ধে যে কোনো মূল্যে চলমান আন্দোলন সফল করার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, এই আন্দোলন মিথ্যার বিরুদ্ধে সত্যের, দুঃশাসনের বিরুদ্ধে সুশাসন প্রতিষ্ঠার। এই আন্দোলন, ৫ জানুয়ারির জোচ্চুরির নির্বাচনের মাধ্যমে যারা গণতন্ত্র বাক স্বাধীনতা ও জনগণের ভোটাধিকার হরণ করেছে তাদের প্রতিহত করার। এই আন্দোলন গুম খুন দুর্নীতিমুক্ত একটি নিরাপদ বাংলাদেশ গড়ার। এই আন্দোলন অবৈধ সরকারের বিরুদ্ধে জনগণের ভোটে  সরকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলন।

বিবৃতিতে তারেক রহমান র‌্যাব পুলিশ ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, বর্তমান সরকার অবৈধ সরকার, আপনারা অবৈধ সরকারের নির্দেশ মানতে বাধ্য নন। আপনারা নির্দেশ মানবেন সত্যিকার অর্থে জনগণের ভোটে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিত্বশীল একটি সরকারের। অবৈধ সরকারের নির্দেশ মেনে আপনারা দেশের সন্তানদের বুকে গুলি করতে পারেন না।

You Might Also Like