আফগান যুদ্ধের সমাপ্তি, ২২০০ মার্কিন সেনা নিহত

আফগানিস্তানে ১৩ বছরের দীর্ঘ যুদ্ধের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি ঘোষণা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

রবিবার এক বিবৃতিতে ওবামা বলেন, ‘আমেরিকার ইতিহাসে দীর্ঘতম যুদ্ধের দায়িত্বশীল সমাপ্তি হলো।’

হাওয়াই দ্বীপে অবকাশ যাপন অবস্থায় ওবামা এ বিবৃতি দিয়েছেন। এতে তিনি আফগান যুদ্ধের মিত্রদের প্রশংসা করে বলেছেন, মিত্র জোটের সেনাদের প্রচেষ্টায় আল-কায়েদা নেতৃত্বের মূল অংশ ভেঙে দেয়া সম্ভব হয়েছে, ওসামা বিন লাদেনকে হত্যা এবং অনেক সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনা নস্যাৎ করা সম্ভব হয়েছে।

১৩ বছরের এ যুদ্ধে নিহত হয়েছে কমপক্ষে ২,২০০ মার্কিন সেনা।

ওবামা বলেন, যুদ্ধের এই ১৩ বছরে মার্কিন জাতি ও সেনাবাহিনীর জন্য বিরাট পারীক্ষা হয়ে গেছে।

তিনি জানান, তার ক্ষমতা গ্রহণের সময় ইরাক ও আফগানিস্তানে ১,৮০,০০০ সেনা মোতায়েন ছিল; এখন তা কমিয়ে ১৫ হাজারেরও নীচে আনা হয়েছে। শতকরা ৯০ ভাগ সেনাকে দেশে ফেরত নেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

১৩ বছরের আফগান যুদ্ধে ৩,৫০০ বিদেশি সেনা মারা গেছে এবং আমেরিকার খরচ হয়েছে এক ট্রিলিয়ন (এক লাখ কোটি) ডলারের বেশি অর্থ। যুদ্ধের ফলে আফগানিস্তানের প্রায় ১০০০০ কোটি ডলারের আর্থিক ক্ষতি হয়েছে।

তবে আফগান যুদ্ধের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি ঘোষণা করা হলেও দেশটিতে ১৩,৫০০ ন্যাটো সেনা অবস্থান করবে যার মধ্যে থাকবে ১১,০০০ মার্কিন সেনা।

এদিকে আফগান যুদ্ধ শেষের ঘোষণা দেয়া হলেও সেখানে তালেবানরা এখনো সক্রিয় রয়েছে এবং দিন দিন শক্তি অর্জন করছে। চলতি ২০১৪ সালেই তালেবান হামলায় আফগান ও বিদেশি সেনার পাশাপাশি বিপুল সংখ্যক বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে। সেক্ষেত্রে ২০০১ সালে তালেবান নির্মূলের নামে আফগানিস্তানে মার্কিন নেতৃত্বাধীন বিদেশি বাহিনীর যে আগ্রাসন চালানো হয়েছিল তাতে তালেবানকে ধ্বংস করা সম্ভব হয়নি।

‘ন্যাটোর পরাজয়’

এদিকে ওবামার ঘোষণার পরদিন সোমবার এক বিবৃতিতে তালেবানরা আফগানিস্তানে ন্যাটো পরাজিত হয়েছে বলে দাবি করেছে।

তারা মার্কিন নেতৃত্বাধীন যুদ্ধকে ‘বর্বরতা ও নিষ্ঠুরতার আগুন’ মন্তব্য করে বলেছে এটি দেশকে ‘রক্তের স্রোতে’ ভাসিয়ে দিয়েছে।

তালেবানের হামলার ভয়ে আড়ম্বরপূর্ণ কোনো বিদায় অনুষ্ঠানেরও সাহস করেনি ন্যাটো।

ইংরেজি ভাষায় দেয়া তালেবানের বিবৃতিতে বলা হয়, ‘এই পদক্ষেপকে আমরা তাদের পরাজয় ও হতাশার সুস্পষ্ট ইঙ্গিত বলে মনে করছি। এই ভারসাম্যহীন যুদ্ধে আমেরিকা, তাদের আগ্রাসী দোসর… এবং সব উদ্ধত আন্তর্জাতিক সংস্থার সুস্পষ্ট পরাজয় ঘটেছে।’

১৯৯৬ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত আফগানিস্তানের ক্ষমতায় ছিল তালেবানরা।

You Might Also Like