`পাইপের ভেতরে মানুষের সন্ধান মেলেনি’ : শিশু উদ্ধারে নাটকীয় অভিযান !

দেশ বিদেশে এখন সবার দৃষ্টি কেড়ে নিয়েছে শাহজাহান পুরের শিশু উদ্ধার অভিযান। গভীর পাইপের ভেতরে কোনো মানুষের সন্ধান মেলেনি ! ঢাকা শহরের শাহজাহানপুর রেলওয়ে মাঠসংলগ্ন পানির পাম্পে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ক্যামেরা দিয়ে গভীর পাইপের ভিতরে কোন মানুষের সন্ধান পাওয়া যায়নি বলে উদ্ধারকারীরা জানিয়েছে।

দুইশ আশি ফুট যাওয়ার পর বোরহোল ক্যামেরাটি আর যাচ্ছেনা তাই ক্যামেরাটি উঠিয়ে নেয়া হচ্ছে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আলী আহমেদ খান জানিয়েছেন, উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন ক্যামেরা দিয়েও গভীর পাইপের ভেতরে কিছু দেখা যায়নি। পাওয়া গেছে ব্যাং তেলাপোকা । স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজজ্জামান খাঁন কামাল জানিয়েছেন, গভীর পাইপের ভেতরে কোনো মানুষের সন্ধান মেলেনি, ভেতরে কেউ নেই, প্রয়োজনে আবার অনুসন্ধান করা হবে।

উল্লেখ্য, শুক্রবার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে একটি শিশু পড়ে যায় খবর পাওয়া যায়। ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট শিশুটিকে উদ্ধারের চেষ্টা করেছে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা জানান, পাইপটির ব্যাস এক ফুট। তাই শিশুটিকে উদ্ধারে বড় কাউকে পাইপ দিয়ে নিচে নামানো যাচ্ছে না। এরই মধ্যে পাইপে রশির সাহায্যে শিশুটিকে জুস দেওয়া হয়েছিল। অন্ধকারে যাতে ভয় না পায়, সেজন্য দুটি টর্চলাইট পাঠানো হয়েছে। শিশুটি এসব জিনিস পেয়েছে বলে সাড়া দিয়েছিল।

নিখোঁজ শিশুটির নাম জিয়াদ। তার বাবার নাম নাসির, মায়ের নাম খাদিজা। দুই ভাই এক বোনের মধ্যে জিয়াদ সবার ছোট। তারা রেলওয়ে কলোনিতে থাকে। নাসিরুদ্দিন মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের দারোয়ান।

এদিকে শিশুটির পিতা নাসিরুদ্দিনকে পুলিশ উঠিয়ে নিয়ে গেছে বলে এলাকার লোকজন বানিয়েছে। সূত্র: ৭১ টিভি।

অন্যদিকে দায়িত্বে অবহেলার কারণে বাংলাদেশ রেলওয়ের সেতু বিভাগের উপ-সহকারী (সিনিয়র) প্রকৌশলী জাহাঙ্গির আলমকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এছাড়া ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ‘এস আর হাউজ’ কালো তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।

You Might Also Like