মাঠপর্যায়েও বিএনপি আওয়ামী লীগ বিয়ে বন্ধনের হিড়িক

রাজনৈতিক মতাদর্শ ভিন্ন হলেও আত্মীয়তার বন্ধনে বাঁধা আওয়ামী লীগ-বিএনপির শীর্ষপর্যায়ের অনেক নেতা। সামাজিক সম্পর্কের পাশাপাশি উভয় দলের অনেক নেতার মধ্যে রয়েছে ব্যবসায়িক সম্পর্কও। তারা প্রকাশ্যে বৈরি মনোভাব দেখান, তির্যক রাজনৈতিক বক্তব্য দেন বটে, কিন্তু আত্মিক কারণে সুখে-দুঃখে পরস্পরের পাশে দেখা যায় তাদের। জানা গেছে, সরকারবিরোধী আন্দোলনেও বিএনপির অনেক নেতা আত্মিক সম্বন্ধের কারণে হয়রানি থেকে রেহাই পান। অন্য দলের সঙ্গেও কম-বেশি সম্পর্ক রয়েছে আওয়ামী লীগ-বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের। এদিকে মাঠপর্যায়েও আওয়ামী লীগের সঙ্গে আত্মীয়তার বন্ধনে জড়াচ্ছেন বিএনপি নেতা-কর্র্মীরা। সর্বশেষ পাবনা পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট তসলিম হাসান সুমনের সঙ্গে আত্মীয়তার সম্পর্ক বিএনপি চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান যিনি ‘শিমুল বিশ্বাস’ নামে সমধিক পরিচিত। তার বড় ছেলে তানভীর রহমান বিশ্বাস ওরফে মিথুন বিশ্বাসের সঙ্গে তসলিম হাসান সুমনের মেয়ে তাহ্জিদ হাসান তরণীর বিয়ে হয়েছে। এ উপলক্ষে গত শনিবার পাবনা আহেদ আলী বিশ্বাস কলেজ মাঠে এক জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বউভাতের ওই অনুষ্ঠানটি হয়ে যায় সর্বদলীয় রাজনৈতিক নেতা-কর্মীর সম্প্রীতির মিলনমেলা। অনুষ্ঠানে প্রায় ২৫ হাজার লোক সমাগম হয়। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জ্বালানি উপদেষ্টা ড. তৌফিক ই-ইলাহী সম্পর্কে ভায়েরা। বেশ কিছুদিন আগে ব্যারিস্টার মওদুদ যখন অসুস্থ হয়ে ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তখন তাকে নিয়মিত সপরিবারে দেখতে যেতেন তৌফিক ই-ইলাহী। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এম মোর্শেদ খান ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার বেসরকারি খাত বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান সম্পর্কে বেয়াই। সালমান এফ রহমানের ছেলের সঙ্গে মোর্শেদ খানের মেয়ের বিয়ে হয়েছে। আবার বিএনপির সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার সঙ্গে সালমান এফ রহমানের চাচা-ভাতিজার সম্পর্ক। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ সেলিমের সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু সম্পর্কে বেয়াই। শেখ সেলিমের ছেলের সঙ্গে টুকুর মেয়ের বিয়ে হয়েছে। অন্যদিকে, শেখ সেলিম সম্পর্কে মামা হন বিজেপি চেয়ারম্যান আন্দালিব রহমান পার্থর। পার্থর শ্বশুর হলেন আওয়ামী লীগ নেতা শেখ হেলাল এমপি। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান কামাল ইবনে ইউসুফ ও আওয়ামী লীগ নেতা সুবিদ আলী ভূঁইয়া এমপি সম্পর্কে বেয়াই। সুবিদ আলী ভঁূইয়ার ছেলের সঙ্গে কামাল ইবনে ইউসুফের মেয়ের বিয়ে হয়েছে। আওয়ামী লীগ নেতা প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন কামাল ইবনে ইউসুফের আপন ভাগ্নে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তর্জাতিকবিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুল আওয়াল মিন্টুও সম্পর্কে বেয়াই। মিন্টুর ছেলের সঙ্গে গওহর রিজভীর মেয়ের বিয়ে হয়েছে। একইভাবে ইসলামী ব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার এস্কান্দারের সঙ্গেও মিন্টুর সম্পর্ক রয়েছে। মিন্টুর ছেলের সঙ্গে ইঞ্জিনিয়ার এস্কান্দারের মেয়ের বিয়ে হয়েছে। সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতা মরহুম এম আর সিদ্দিকীর ছেলের সঙ্গে বিয়ে হয়েছে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মরহুম সাইফুর রহমানের মেয়ের। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চাচা শেখ কবিরের সঙ্গে বিএনপির প্রয়াত মহাসচিব আবদুল মান্নান ভূঁইয়ার সম্পর্ক বেয়াইয়ের। মান্নান ভূঁইয়ার ছেলের সঙ্গে শেখ কবিরের মেয়ের বিয়ে হয়েছে। মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত জেলে থাকা বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও আওয়ামী লীগ নেতা সাবের হোসেন চৌধুরী সম্পর্কে মামাতো ফুফাতো ভাই। আবার আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ এইচ এম আশিকুর রহমানের সঙ্গেও সাকা চৌধুরীর আত্মীয়তার সম্পর্ক রয়েছে। সালমান এফ রহমান ও সাকা চৌধুরী সম্পর্কে খালাতো ভাই। রাউজানে আওয়ামী লীগের এমপি ফজলে করীম সাকা চৌধুরীর চাচাতো ভাই। এ ছাড়া সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর সঙ্গেও সাকা চৌধুরীর সম্পর্ক চাচা-ভাতিজার। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমানের ভাই মরহুম আবদুল্লাহ আল হারুন ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা। তার আরেক ভাই আবদুল্লাহ আল মামুন জাতীয় পার্টির রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান ও সিপিবির উপদেষ্টা মনজুরুল আহসান খান সম্পর্কে চাচাতো ভাই। আবার ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমানের বড় ভাই। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ভাই মরহুম সাইদ এস্কান্দার এবং আওয়ামী লীগ নেতা হোটেল রাজমনি ঈশা খাঁর মালিক মনি সম্পর্কে বেয়াই। মনির মেয়ের সঙ্গে সাইদ এস্কান্দারের ছেলের বিয়ে হয়েছে। ওয়ান ইলেভেনের আলোচিত লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) মাসউদ উদ্দিন চৌধুরী ভায়রা হন সাইদ এস্কান্দারের। জানা যায়, জেনারেল মাসউদ ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্নেহভাজন। যুবদল সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলালের বড় ভাই সৈয়দ দুলাল বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের নাট্য ও সাংস্কৃতিকবিষয়ক সম্পাদক। আরেক ভাই মরহুম সৈয়দ হেলাল জাতীয় পার্টির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন। জানা যায়, এলজিআরডিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের সঙ্গে বিএনপি নেতা আশরাফ উদ্দিন নিজানেরও আত্মীয়তার সম্পর্ক রয়েছে। দক্ষিণাঞ্চলে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম বসাত উল্লাহ চৌধুরীর মেয়ের জামাই বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আলতাফ হোসেন চৌধুরী। এ ছাড়া আওয়ামী লীগ নেতা আবদুস সাত্তার ভূঁইয়া বিএনপির ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরীর চাচা শ্বশুর বলেও জানা গেছে।
সূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন।

You Might Also Like