তেলের মূল্য বাড়াবে সরকার

শ্যালা নদীর তেল অপসারণে বিদেশি সাহায্যের জন্য দ্রুত বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বসার পাশাপাশি তেল সংগ্রহ কেন্দ্র বাড়ানো ও তেলের মূল্য বাড়ানোর সুপারিশ করেছে সরকার।

রোববার (১৪ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব সাংবাদিকদের একথা জানান।

ট্যাঙ্কার ডুবিতে শ্যলা নদীতে ফার্নেস অয়েল ছড়িয়ে পড়ার পরিপ্রেক্ষিতে উদ্ভূত পরিস্থিতি পর্যালোচনা ও ভবিষ্যৎ করণীয় সম্পর্কে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনকে যেকোনো মূল্যে রক্ষা করব জানিয়ে আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব বলেন, তেল সংগ্রহে ভ্রাম্যমাণ কেন্দ্র করার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

গত ৯ ডিসেম্বর সুন্দরবনের কাছে শ্যালা নদীতে সাড়ে তিন লাখ লিটার তেল নিয়ে একটি ট্যাঙ্কার ডুবে যায়। বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন (বিপিসি) স্থানীয়দের সম্পৃক্ত করে ৩০ টাকা দরে তেল সংগ্রহ করছে।

একশ’ নৌকা ও তিনশ’ কর্মী তেল সংগ্রহ করছে জানিয়ে পরিবেশ উপমন্ত্রী বলেন, কমপক্ষে স্থানীয়ভাবে আরো পাঁচশ’ নৌকা দিয়ে তেল সংগ্রহে প্রধান বন সংরক্ষককে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব খন্দকার রাকিবুর রহমান বলেন, তেল আহরণ কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়ানোর পাশাপাশি মূল্য যৌক্তিক পর্যায়ে বাড়ানোর জন্য বিপিসিকে বলা হয়েছে।

এভাবে তেল সংগ্রহে কত দিন সময় লাগতে পারে তা স্পস্ট না করলেও উপমন্ত্রী বলেন, স্বল্প সময়ের মধ্যে যেন তেল সংগ্রহ করতে পারি সে বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

তেল সংগ্রহে বিদেশিদের সহায়তা নেওয়া হবে কি না- জানতে চাইলে উপমন্ত্রী বলেন, বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে দ্রুত আলোচনা করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেব।

তেল সংগ্রহকারীরা যেন চর্মরোগে আক্রান্ত না হন সেজন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় মেডিকেল টিম পাঠানোর পাশাপাশি নিরাপত্তার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ব্যবস্থা নেবে বলেও জানান জ্যাকব।

এছাড়া হোয়াইট ফিস রক্ষায় মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে যারা কাঁকড়া শিকার করে জীবিকা নির্বাহ করতেন তাদের জন্য ত্রাণ মন্ত্রণাণয় ত্রাণ ও রিলিফের ব্যবস্থা করবে বলে জানান উপমন্ত্রী।

You Might Also Like