স্বল্প খরচে শ্রমিক নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে কাতার

স্বল্প অভিবাসন ব্যয়ে বাংলাদেশি শ্রমিক নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে কাতার। নির্মাণসহ বিভিন্ন খাতে দেশটিতে প্রচুর কর্মী চাহিদা রয়েছে বলে জানিয়েছে তারা।

মূলত ২০২২ সালে কাতারে ফুটবল বিশ্বকাপ উপলক্ষে বিভিন্ন অবকাঠামো নির্মাণ কার্যক্রমে ব্যাপক কর্মীর চাহিদা সৃষ্টি হয়েছে। দেশটিতে কর্মরত বাংলাদেশের শ্রমিকদের কর্মদক্ষতার কথা বিবেচনায় রেখেই এ আগ্রহের কথা জানিয়েছে তারা।

বৃহস্পতিবার (১১ ডিসেম্বর) প্রবাসী কল্যাণ ভবনে, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেনের সঙ্গে সাক্ষাতকালে এই আগ্রহের কথা জানান ঢাকায় নিযুক্ত কাতারের রাষ্ট্রদূত আবদুল্লাহ আব্দুল আজিজ আল মানা।

এ সময় তারা পারস্পারিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে নিয়েও আলোচনা করেন।

বৈঠকে রাষ্ট্রদূত বলেন, আগামী ২০২২ সালে ফুটবল বিশ্বকাপ উপলক্ষে বিভিন্ন অবকাঠামো নির্মাণ কাজে আমাদের ব্যাপক কর্মীর চাহিদা সৃষ্টি হয়েছে। যা বিভিন্ন দেশ থেকে পূরণ করা হবে।

এ উপলক্ষে ৫০ হাজার কর্মী নিয়োগের দরকার হবে। বাংলাদেশের কর্মীগণ এ সুযোগ গ্রহণ করতে পারে বলে জানান তিনি।

এছাড়াও তিনি অন্যান্য খাতে কর্মী নিয়োগের বিষয়ে বাংলাদেশকে অগ্রাধিকার প্রদানের আশ্বাস দেন। স্বল্প অভিবাসন ব্যয়েই এ সব শ্রমিক নেওয়া হবে বলে হবে উল্লেখ করেন রাষ্ট্রদূত।

তিনি বলেন, কাতারে কর্মরত বাংলাদেশি কর্মীরা দক্ষতায় অন্যান্য দেশের কর্মীদের তুলনায় বেশি দক্ষ।

এজন্য তিনি বাংলাদেশি কর্মীদের প্রশংসা করে বলেন, কোনো কর্মী যেন দালালের হাতে আর্থিকভাবে প্রতারিত না হয় সে বিষয়ে সরকারকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

এ সময় প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী বলেন, আমাদের ২২ লাখ রেজিস্ট্রেশনকৃত কর্মীর ডাটা ব্যাংক রয়েছে। সে ডাটা ব্যাংক থেকে আমরা যে কোনো সংখ্যক কর্মী সরবরাহ করতে পারবো। এ পদ্ধতিতে কোনো আদম ব্যবসায়ীর প্রবেশের সুযোগ নেই।

কাতারে বর্তমানে ২ লাখেরও বেশি বাংলাদেশি কর্মী কর্মরত রয়েছে।

এ সময় বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব খন্দকার মো. ইফতেখার হায়দার, বিএমইটির মহাপরিচালক বেগম শাসছুন নাহারসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তারা।

You Might Also Like