বিশ্বকাপ খেলতে চান না মালিক!

বিশ্বকাপ ট্রফিটা জয় করা যেকোনো খেলোয়াড়ের আজন্ম আরাধ্য স্বপ্ন। সেটা সম্ভব না হলেও, বিশ্বকাপে খেলা তো চাই-ই। বিশ্বকাপ দলে জায়গা না পেলে খেলোয়াড় তাই হতাশ হয়ে পড়েন। গত ফুটবল বিশ্বকাপে কার্লোস তেভেজ তো অভিমানে বিশ্বকাপই দেখবেন না বলে জানিয়েছিলেন।

আর সেখানে একেবারেই অপ্রত্যাশিত এক খবরের জন্ম দিলেন শোয়েব মালিক। পাকিস্তানের এই অলরাউন্ডার নাকি নিজেই বিশ্বকাপে খেলতে চান না!

দলের সাবেক এই অধিনায়ক আছেন বিশ্বকাপের জন্য ঘোষিত পাকিস্তানের প্রাথমিক দলে। এই মৌসুমে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে দুর্দান্ত খেলছেনও। ফর্ম আর অভিজ্ঞতার কারণে চূড়ান্ত দলেও জায়গা হতে পারে তাঁর। তবে মালিকের কাছের একটি সূত্র বার্তা সংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছে, মালিক নিজে থেকেই নাকি সরে যেতে চাইছেন। এ ক্ষেত্রে দুটো কারণ কাজ করছে। একটি কারণ হলো, সাম্প্রতিক সময়ে বোর্ড থেকে অবহেলার শিকার হওয়া। দ্বিতীয় কারণটাই গুরুতর। নিজের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সংশয় আছে তাঁর। এই মুহূর্তে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলে অ্যাকশন প্রশ্নবিদ্ধ হলে মালিকের ক্যারিয়ারই পড়ে যাবে ঝুঁকির মধ্যে। এমনিতেই সামনে বেশ কিছু টি-টোয়েন্টি লিগে লোভনীয় প্রস্তাব কড়া নাড়ছে তাঁর দুয়ারে।

সম্প্রতি বোলিং অ্যাকশন নিয়ে ক্রিকেটে বেশ কড়াকড়ি চলছে। আইসিসির সাম্প্রতিক সভার সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে প্রশ্নবিদ্ধ অ্যাকশনের বোলারদের আতশকাচের নিচে নিয়ে আসা হচ্ছে। পাকিস্তানেরই মূল স্পিন-ভরসা সাঈদ আজমল নিষিদ্ধ হয়েছেন। সম্প্রতি নিষিদ্ধ হয়েছে মোহাম্মদ হাফিজেরও বোলিং। এ অবস্থায় মালিক একটু ভয়েই আছেন বলে জানিয়েছে সেই সূত্রটি, ‘মালিক নিজের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সম্প্রতি বেশ কাজ করেছে, ইদানীং বেশি বোলিংও সে করছে। কিন্তু সে উদ্বিগ্ন। কারণ, সামনের মাসগুলোতে বেশ কিছু বিদেশি টি-টোয়েন্টি লিগে খেলার লোভনীয় প্রস্তাব আছে। এ অবস্থায় নিজেকে সে ঝামেলায় ফেলতে চায় না।’

আজমল আর হাফিজের বোলিংটা আগামী বিশ্বকাপে পাকিস্তান না পেলে বড় ভরসা হয়ে দেখা দেওয়ার কথা মালিকেরই। কিন্তু সেই তিনিই স্বেচ্ছায় পিছু হটতে চাইছেন! অ্যাকশন নিয়ে মালিক ঝামেলায় পড়তে পারেন বলে আশঙ্কা সাবেক পাকিস্তান তারকা রমিজ রাজা আর শোয়েব আখতারেরও। শোয়েব বলেছেন, ‘নিজের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে শতভাগ নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিং করে লোভনীয় টি-টোয়েন্টি লিগের প্রস্তাবগুলোকে ঝামেলায় ফেলবে বলে আমার মনে হয় না।’
সূত্রটি আরও জানিয়েছে, অধিনায়ক মিসবাহ-উল হক ও হাফিজের সঙ্গে সম্পর্কটাও ভালো নয় মালিকের।

You Might Also Like