সুন্দরবনে হুমকিতে পড়েছে প্রায় ৩৭৫ প্রজাতির প্রাণী

সুন্দরবনের শ্যালা নদীতে তেলবাহী ট্যাংকার ডুবির কারণে চরম হুমকিতে পড়েছে প্রায় ৩৭৫ প্রজাতির বন্য ও জলজ প্রাণী। এর মধ্যে ৩২ প্রজাতির স্তন্যপায়ী, ৩৫ প্রজাতির সরীসৃপ, ৩০০ প্রজাতির পাখি এবং ৮ প্রজাতির উভচর প্রাণী রয়েছে।

এ ছাড়া ৩৩৪ প্রজাতির গাছগাছালি, ১৬৫ প্রজাতির শৈবাল এবং ১৩ প্রজাতির অর্কিডও পড়েছে একই ধরনের হুমকিতে। কারণ ম্যানগ্রোভ বনের এসব উদ্ভিদ শ্বাসমূল দিয়ে অক্সিজেন গ্রহণ করে থাকে। ডুবে যাওয়া ট্যাংকার থেকে প্রায় সাড়ে তিন লাখ লিটার ফার্নেস অয়েল দ্রবীভূত হওয়ায় ওই এলাকার পানিতে অক্সিজেনের পরিমাণ কমে গেছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পানিতে অক্সিজেনের পরিমাণ কমে যাওয়ার কারণে এসব উদ্ভিদ স্বাভাবিক শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে পারছে না। এ জন্য আশঙ্কা করা হচ্ছে, সুন্দরবনে ভয়াবহ বিপর্যয় নেমে আসতে পারে।

ংঁহ ঃবষসুন্দরবনের পূর্ব বন বিভাগের কর্মকর্তা আমীর হোসেন চৌধুরী জানান, ট্যাংকার ডুবে যাওয়ায় সুন্দরবনের শ্যালা, চাঁদপাই, দুধমুখী ও ধানসারি নদীতে বিপুল পরিমাণ ফার্নেস অয়েল ছড়িয়ে পড়েছে। যে কারণে জলজ প্রাণী ছাড়াও সুন্দরবনের সুন্দরী, গেওয়া, পশুর, পরান ও গোলপাতাসহ ৩৩৪ প্রজাতির উদ্ভিদ এখন মারাত্মক হুমকির মুখে।

তিনি বলেন, সুন্দরবন এলাকার ৪৫০টি নদ-নদী ও খালে এই তেল ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এতে করে প্রায় ১ হাজার ৮৭৫ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে জীববৈচিত্রের মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার ভোরে ঘন কুয়াশার কারণে এমভি টোটাল নামের একটি জাহাজের ধাক্কায় তেলবাহী এমভি ওটি সাউদার্ন স্টার সেভেনের তলা ফেটে যায়। ধীতে ধীরে ডুবে যায় ট্যাংকারটি। এতে থাকা ৩ লাখ ৫৭ হাজার ৬৬৪ লিটার তেল পানিতে ছড়িয়ে পড়ে।

You Might Also Like