সিংহের খাঁচা থেকে বেঁচে ফেরা (ভিডিও)

একদল সিংহের খাঁচা থেকে বেঁচে ফেরার ঘটনা রূপকথার গল্পের মতো মনে হতে পারে অনেকের কাছে। কিন্তু সত্যিই রোববার স্পেনের বার্সেলোনার চিড়িয়াখানায় সিংহ রাখার খাঁচায় পড়ে গিয়েও বেঁচে ফিরেছেন হুস্তো হোসে (৪৫) নামের এক ব্যক্তি।

কিন্তু তার জীবনের ওপর দিয়ে বেশ ঝক্কি-ঝামেলা গেছে। সিংহের আক্রমণের ফলে তার শরীরের বিভিন্ন অংশ ক্ষত-বিক্ষত হয়েছে। মারাত্মক আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। দীর্ঘদিন নিরাপত্তা বাহিনীতে কাজ শেষে অবসরে আছেন হোসে।

ডেইলি মেইলের খবরে বলা হয়, তিনি ইচ্ছে করেই সিংহের খাঁচায় ঝাঁপ দিয়েছেন। জোসে গত বছর এক স্থানীয় সাংবাদিককে বলেছিলেন, সন্তান, স্ত্রী ও মাকে হারানোর পর তিনি আর বেশি দিন বেঁচে থাকতে চান না। তিনি বেশ কষ্টে দিন অতিবাহিত করছেন। তার বন্ধুরা অনেক সময় তাকে বিভিন্ন কাজে সাহায্য করে থাকে বলেও জানান তিনি। নিজের বাড়ি থাকার পরও রাস্তার রাত্রিযাপন করেন বলেও জানান হোসে।

খবরে বলা হয়, রোববার বিকেলে হোসে সেনা পোশাকে চিড়িয়াখানার সিংহের খাঁচার নিকট হাজির হন। তিনি খাঁচার রেলিং-এর দেয়াল বেয়ে উপড়ে ওঠে। এরপর সিংহের খাঁচায় লাফিয়ে পড়েন। এ সময় প্রথমে একটি সিংহ পরে আরো কয়েকটি তার শরীর কামড়ে ক্ষত-বিক্ষত করে। খাঁচায় পড়ার ৩০ মিনিট পর দমকল বাহিনীর লোকজন তাকে উদ্ধার করে শহরের ডি লা ভ্যাল ডি হেবরন হাসপাতালে ভর্তি করে। তার অবস্থার বিপজ্জনক হলেও মৃত্যু ঝুঁকির থেকে আশঙ্কামুক্ত।

বার্সেলোনা ফায়ার সার্ভিসের প্রধান হেক্টর কারমোনা জানান, নিরাপত্তা ব্যবস্থার কারণে কোনো ব্যক্তির সিংহের খাঁচার মধ্যে পড়ে যাওয়াটা অসম্ভব। স্বেচ্ছায় সিংহের খাঁচায় গিয়ে হাজির না হলে, এমন ঘটনা ঘটতো না বলেও দাবি করেন তিনি।

চিড়িয়াখানার তত্ত্বাবধানকারী কর্মকর্তারা জানান, সিংহগুলো লোকটিকে হত্যার চেষ্টা করেনি বলেই মনে হচ্ছে। হোসের শরীরের আঁচড় ও কামড়ের চিহ্ন দেখে বোঝা যায় সিংহগুলো তাকে নিয়ে খেলতে চেয়েছিল।

তবে দমকল কর্মীরা হোসেকে উদ্ধারে ৩০ মিনিট সিংহগুলোর সঙ্গে যুদ্ধ করেছে। এ সময় তারা জল কামান ও নিদ্রার ওষুধও ব্যবহার করে।

You Might Also Like