সুখবর নেই প্রেসিডেন্টের ঘেষণায় !

প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার নির্বাহী আদেশে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত কয়েকটি ক্যাটাগরির ৪৭ লাখ অবৈধ অভিবাসী বৈধ হওয়ার সুযোগ পাবেন। গত বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় (নিউ ইয়র্ক সময়) টেলিভিশনে দেওয়া বক্তব্যে প্রেসিডেন্ট ওবামা ওই ঘোষণা দেন। এর আগে ফেসবুকে এক ভিডিও বার্তায় ওবামা এ ঘোষণার কথা জানিয়েছিলেন। খবর বিবিসি ও আলজাজিরার।
বহুল প্রত্যাশিত প্রেসিডেন্টের এই ঘোষণায় দীর্ঘদিন ধরে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত লক্ষ লক্ষ কাগজপত্রহীন মানুষের আকাঙ্খার কোন প্রতিফলন ঘটেনি। যারা আশায় বুক বেঁধে অমানসিক শ্রম ঢেলে এই দেশের অর্থনীতিতে অবদান রেখে যাচ্ছে, বৈধতার আশায় স্বজন স্বদেশ ছেড়ে পরবাসে জীবনপাত করছে তাদের জন্য কোন সুখবর নেই এই আদেশে।
প্রেসিডেন্টের এ ঘোষণার পর এতে তীব্র প্রতিক্রিয়া করেছে বিরোধী রিপাবলিকান শিবির। কংগ্রেসকে পাসকাটিয়ে ওবামার নেওয়া এ পদক্ষেপ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে তার সম্পর্ককে নষ্ট করবে বলে রিপাবলিকানদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে। দেশটির পার্লামেন্টের উচ্চ ও নিম্ন উভয় কক্ষেই রিপাবলিকানরা সংখ্যাগরিষ্ঠ।
ওবামা তার ভাষণে অবৈধ অভিবাসীদের উদ্দেশে বলেন, ‘লুকানো অবস্থান ছেড়ে বেরিয়ে আসুন ও আইনি অধিকার লাভ করুন।’
তিনি বলেন, ‘আমাদের অভিবাসন পদ্ধতি ভেঙ্গে গিয়েছিল যা সকলেই জানেন।’
নতুন আইনের বিরোধিতাকারীদের উদ্দেশে ওবামা বলেন, কোনো অপরাধীকে যুক্তরাষ্ট্রে থাকার বৈধতা দেওয়া হবে না। অপরাধীদের জেনে রাখা উচিত তারা এখানে অবৈধভাবে প্রবেশের চেষ্টা করলে তাদের ধরে ফেরত পাঠানো হবে।
নতুন আইন করে বৈধ হওয়া অভিবাসীরা কাজের ক্ষেত্রে সঠিক মূল্যায়ন পেলেও তাদের মার্কিন নাগরিকদের মতো সুযোগ-সুবিধা প্রদান করা হবে না বলে জানান তিনি।
রিপাবলিকানদের সমোলোচনার জবাবে ওবামা বলেন, ‘কংগ্রেসের যে সদস্যরা অভিবাসন পদ্ধতিকে আরও উন্নত করতে আমার ক্ষমতা প্রয়োগ ও জ্ঞানের বিষয়ে প্রশ্ন তোলেন তাদের বলতে চাই, বিলটি পাস করুন। কংগ্রেস এর আগে তা করতে ব্যর্থ হয়েছে।’
প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রে বর্তমানে প্রায় এক কোটি ১০ লাখ অবৈধ অভিবাসী রয়েছে। এর মধ্যে বহু বাংলাদেশী রয়েছেন।

You Might Also Like