পারমাণবিক যুদ্ধের হুমকি উত্তর কোরিয়ার

পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষার হুমকি দিল উত্তর কোরিয়া। পিয়ংইয়ং-এর মানবাধিকার লঙ্ঘণের বিষয়টি আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে তুলতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সভায় বুধবার একটি বিল পেশ করে যুক্তরাষ্ট্র। আর এ পদক্ষেপের একদিন পর বৃহস্পতিবার এ হুঁশিয়ারি দেওয়া হলো।

উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিবৃতিতে অভিযোগ করে, যুক্তরাষ্ট্রের কুপরিকল্পনার অংশ হিসেবে উত্তর কোরিয়ার মানবাধিকার লঙ্ঘণের বিষয়টি তদন্তের প্রস্তাব তোলা হয় জাতিসংঘে। একটি মনগড়া সাক্ষ্য দিয়ে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে কুচ্ছা রটানো হচ্ছে। এটা ভ-ামির চূড়ান্ত পর্যায়।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে তাদের দেশ সীমাহীনভাবে সামরিক শক্তি বাড়াতে থাকবে। এর মধ্যে পারমাণবিক অস্ত্রপরীক্ষা করা থেকেও পিছপা হবে দেশটি।
২০০৬, ২০০৯ ও ২০১৩ সালে পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষা চালায় উত্তর কোরিয়া।

জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশন মঙ্গলবার উত্তর কোরিয়ার মানবাধিকার লঙ্ঘণের তদন্ত প্রস্তাবটি পাস করে। একইসঙ্গে দেশটির মানবাধিকার লঙ্ঘণকারীদের আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারের আওতায় আনার জন্য নিরাপত্তা পরিষদের কাছের আবেদন করে। এর আহ্বানের প্রেক্ষিতে বিষয়টি নিরাপত্তা পরিষদে তোলা হয়।

উত্তর কোরিয়ার হুমকির তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র জানিয়েছেন, এ ধরনের হুমকি খুবই দুর্ভাগ্যজনক। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় যখন দেশটির বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘণের অভিযোগ তুলে ধরেছে তখনই এ হুমকি দেওয়া হলো।

You Might Also Like