অলৌকিক ক্ষমতা পেতে শিশুর হৃৎপিণ্ড ভক্ষণ!

শিশুর নির্দিষ্ট একটি অংশ খেতে পারলে অলৌকিক ক্ষমতা পাওয়া যাবে! এ যুক্তিটা আপনি আমার কাছে সেটি কুসংস্কার মনে হলেও তা বিশ্বাস করে এক নরকীয় কাণ্ড ঘটিয়েছে এক অটোচালক আসিফ শাহ ওরফে মুন্না।

ভারতের নাগপুরের বাসিন্দা আসিফ তন্ত্রমন্ত্র নিয়ে চর্চা করতেন। অলৌকিক ক্ষমতা অর্জন করতে তিনি সব করতেই রাজি! তাকে এক তান্ত্রিক জানায়, কোনো শিশুর চোখ, কিডনি ও হৃৎপিণ্ড খেলে অলৌকিক ক্ষমতা অর্জন করতে পারবে সে। আর সেই কুসংস্কারে ডুবে থাকা আসিফ আরো পাঁচ যুবককে সঙ্গে নিয়ে গত ৮ নভেম্বর ওয়ার্ধা থেকে একটি শিশুকে অপহরণ করে। নয় বছরের ওই শিশুর নাম রূপেশ হীরামন মুলে, চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র।

অপহরণের পর তাকে একটি নির্জন জায়গায় নিয়ে গিয়ে খুন করা হয়। তারপর সেই শিশুর চোখ, কিডনি ও হৃৎপিণ্ড তুলে নিয়ে সেইগুলো রান্না করে তা ভক্ষণ করে তারা। সেগুলো খাওয়ার পর স্থানীয় একটি হনুমান মন্দিরে পুজা দেয় আসিফ।

এদিকে পরিবার শিশুটিকে অনেক খোঁজাখুঁজির পর না পেয়ে পুলিশের দারস্থ হয়। পরে পুলিশ নির্দিষ্ট সূত্র ধরে পাঁচ শাগরেদসহ আসিফ শাহ ওরফে মুন্নাকে গ্রেপ্তার করে। আসিফের পাঁচ শাগরেদ হলো- উত্তম পোহানে, অঙ্কুশ গিরি, সুরেশ ধানোড়ে, দিলীপ ভোগে ও দিলীপ খামখারকে।

গ্রেপ্তারের পর নৃশংস এ ঘটনার বর্ণনা দেয় তারা। তাদেরকে এখন পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে।

You Might Also Like