এখন ধর্ষণের রাজধানী!

একের পর ধর্ষণের ঘটনায় ভারতের আইটি নগরী বেঙ্গালুরু এখন ধর্ষণের রাজধানীতে পরিণত হয়েছে। এবার শিকার ১৯ বছরের এক কলেজ ছাত্রী। দক্ষিণ-পশ্চিম বেঙ্গালুরুর ওমকারা হিলসে পুরুষ সঙ্গীর সামনেই তাঁকে ধর্ষণ করে এক বাস চালক।

শুধু তাই নয়, সেই ছবি তুলে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে ক্রমাগত ব্ল্যাকমেইল করে তাঁকে। প্রথমে ভয়ে মুখ না খুললেও, বারবার হুমকি সহ্য করতে না পেরে শেষে পরিবারকে সব জানান ওই তরুণী। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাতে মুরথি নামে ওই বাস চালককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গত ২৫ অক্টোবর নিজের পুরুষ সঙ্গীর সঙ্গে ওমকারা হিলসের কাছে একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে গিয়েছিলেন ওই তরুণী। তাঁর বয়ান অনুযায়ী, তাঁরা দু-জন যখন কথা বলছিলেন, তখনই হঠাৎ মুরথি সেখানে আসে। জানা গেছে, তার পুরো নাম সঞ্জীব মুরথি। পেশায় স্কুলের বাস চালক। মুরথি এসেই ওই তরুণীর সঙ্গে থাকা যুবকের হাতের মোবাইল ফোনটি কেড়ে নেয়। তারপর তাঁকে মারধর করে। ওই যুবকের সামনেই তরুণীকে ধর্ষণ করে সে। যাওয়ার আগে মোবাইলে বেশ কয়েকটি ছবি তুলে রাখে।

এখানেই আতঙ্ক পিছু ছাড়ে না ওই কলেজ ছাত্রীর। ছিনিয়ে নেওয়া মোবাইল থেকে তরুণীর ফোন নম্বর জোগাড় করে প্রায়ই ফোন করে মোটা টাকা দাবি করে সে। টাকা না দিলে সব ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। ভয়ে একবার টাকাও দেন ওই তরুণী।

কিন্তু তাতেও থামে না মুরথি। টাকার দাবি সমানে বাড়তেই থাকে। প্রায় দিন ১৫ এভাবে চলার পর বাধ্য হয়ে নিজের পরিবারে সব জানান তিনি। মঙ্গলবার বিকেলে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন ওই ছাত্রী। রাতেই কেড়ে নেওয়া ফোনের টাওয়ার থেকে মুরথি কোথায় আছে তা জেনে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

You Might Also Like