প্রাণভিক্ষা না চাইলে ৭ দিন পর যেকোন সময় রায় কার্যকর : আইনমন্ত্রী

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, আইন অনুযায়ী ২১ থেকে ২৮ দিনের মধ্যে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত কামারুজ্জামানের ফাঁসি কার্যকর করতে হবে। আর রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা না চাইলে ৭ দিন অতিবাহিত হবার পরই যে কোনো সময় কার্যকর করা যাবে এ রায়।

আইনমন্ত্রী আরো জানান, রায় হওয়ার ৭ দিনের মধ্যে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদন (মার্সি পিটিশন) করতে পারবেন কামরুজ্জামান।

সোমবার বিকেল ৩টার দিকে মন্ত্রী তার গুলশান কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কামারুজ্জামান যদি মার্সি পিটিশন না করেন তাহলে আমি মনে করি খুব শিগগিরই এ রায় কার্যকর করা যাবে।

গত ৯ মে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মোহাম্মদ কামারুজ্জামানের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ড দেয়ার রায় ঘোষণা করে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন কামারুজ্জামান।

সোমবার আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের বেঞ্চ সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতে ট্রাইব্যুনালের দেওয়া মৃত্যুদণ্ডের রায় (ফাঁসি) বহাল রেখে আদেশ দেয়।

বেঞ্চের অন্য বিচারপতিরা হলেন- বিচারপতি আবদুল ওয়াহহাব মিয়া, বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ও বিচারপতি এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী।

You Might Also Like