ডিভোর্স প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলো হৃতিক ও সুজানার

অবশেষে আনুষ্ঠানিকভাবে ডিভোর্স প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলো বলিউড সুপার স্টার হৃতিক ও সুজানা খানের। গত এক বছর ধরেই আলাদা থাকছেন এই দম্পতি। কিন্তু হৃতিক ভক্তরা আশায় ছিলেন তাদের সম্পর্কটা আবারও জোড়া লাগবে। শুধু ভক্তরা নয়, পরিবারও একই আশা করেছিলেন। কিন্তু না, তাঁদের ভালোবাসার ভাঙন আর জোড়া লাগলোই না।

বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় জুটি মানা হয় হৃতিক-সুজানাকে। ২০০০ সালে বিয়ের পর টানা ১৩ বছর সংসার করেছেন তারা। এর আগে ৫ বছর চুটিয়ে প্রেম করেছেন তারা। ভালোবাসার ফসল হিসাবে আছে দুটি সন্তানও। কিন্তু এসব সত্ত্বেও কিছুদিন আগেই তালাকের জন্য আবেদন করেন তাঁরা। এবং এরপর দুজনেই মেতে ওঠেন যার যার নতুন প্রেম নিয়ে। হৃতিকের সাথে শোনা যেতে থাকে ক্যাটরিনার প্রেমের গুঞ্জন, সুজানাও ব্যস্ত হয়ে পরেন অর্জুন রামপালকে নিয়ে! আর তাই ১৭ বছরের সম্পর্কের অবসানটা হয়েই গেলো।

যদিও এর মাঝে একাধিকবার হৃতিকের বক্তব্যে সুজানার প্রতি তার ভালবাসার বিষয়টি পরিষ্কার হয়। কিন্তু সুজানা বারবার জানান যে অত্যন্ত আত্মকেন্দ্রিক ও স্বার্থপর ধরণের মানুষ তার স্বামী এবং আর সম্ভব হবে না সংসার করা। সেই সূত্র ধরেই অবশেষে সম্পর্কের জোড়া আর লাগলো না। আনুষ্ঠানিকভাবে শুক্রবার ডিভোর্স হয়ে গেলেও বিষয়টি জানাজানি হয় গতকাল। মুম্বইর বান্দ্রা কোর্টে এই ডিভোর্স প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয় হৃতিক ও সুজানার উপস্থিতিতে।

উল্লেখ্য যে, হৃতিক-সুজানার জীবনে রিহান ও রিদান নামে দুই পুত্র সন্তান রয়েছে এবং তাদের বিষয়টি নিয়ে অবশ্য কোর্ট কোন নির্দেশনা এখনও দেয়নি। পরের শুনানিতে হৃতিক, সুজানা, রিহান ও রিদানের উপস্থিতিতে কোর্ট তার সিদ্ধান্ত জানাবে।

সূত্র- দৈনিক মানব জমিন

You Might Also Like