পরমাণু অস্ত্রের ব্যাপারে দ্বৈত নীতি নিয়েছে পাশ্চাত্য: জাতিসংঘকে জানাল ইরান

পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ প্রশ্নে পাশ্চাত্য দ্বিমুখী নীতি নিয়েছে বলে অভিযোগ করেছে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান। তেহরান জাতিসংঘকে বলেছে, পাশ্চাত্যের এ দ্বৈত অবস্থানের কারণে পরমাণু অস্ত্র বিস্তার রোধের সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়ে যাচ্ছে।

 

তেহরান সফররত জাতিসংঘের উপ মহাসচিব জ্যান এলিয়াসনের সঙ্গে এক সাক্ষাতে একথা বলেছেন ইরানের সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সচিব আলী শামখানি। বুধবার বিকেলে এ সাক্ষাতে শামখানি বলেন, “দুঃখজনকভাবে পাশ্চাত্যের দ্বৈত নীতির কারণে পরমাণু অস্ত্র বিস্তার রোধের প্রচেষ্টা ফলপ্রসু হচ্ছে না।” তিনি মধ্যপ্রাচ্যকে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করার লক্ষ্যে আন্তরিক প্রচেষ্টা চালাতে জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানান। মধ্যপ্রাচ্যে একমাত্র ইহুদিবাদী ইসরাইলের কাছে কয়েকশ’ পরমাণু অস্ত্র আছে বলে মনে করা হয়।

 

আলী শামখানি বলেন, ইরানের পরমাণু কর্মসূচি যে শান্তিপূর্ণ তা আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা- আইএইএ বহুবার স্বীকার করেছে। জাতিসংঘের পাঁচ স্থায়ী সদস্যদেশ ও জার্মানির সমন্বয়ে গঠিত ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে চূড়ান্ত পরমাণু চুক্তি সই করতে তেহরান প্রস্তুত রয়েছে বলেও জানান তিনি।

 

সাক্ষাতে জাতিসংঘের উপ মহাসচিব বলেন, ইরানের সঙ্গে চূড়ান্ত পরমাণু চুক্তি সই করার ক্ষেত্রে জাতিসংঘ পুরোপুরি আন্তরিক। ছয় জাতিগোষ্ঠী আগামী ২৪ নভেম্বরের আগেই এ ব্যাপারে তেহরানের সঙ্গে একটি সমঝোতায় পৌঁছাতে পারবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

You Might Also Like