বিদেশি ব্যাংক অ্যাকাউন্টধারীদের তালিকা করতে ভারতের সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ

বিদেশি ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট থাকা ভারতীয় সব নাগরিকের তথ্য আগামীকাল বুধবারের মধ্যে প্রকাশ করতে সরকারকে নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। আজ মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি এইচ এল দাত্তুর নেতৃত্বাধীন সুপ্রিম কোর্টের একটি বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদেশে অপরাধের অভিযোগ নেই অথচ বিদেশি অ্যাকাউন্ট আছে, এমন ব্যক্তিদের হিসাব প্রকাশ না করতে সরকারের আবেদনও নাকচ করে দিয়েছেন আদালত।
আদেশের সময় সরকারের প্রতি দৃশ্যত বিরক্তি প্রকাশ করে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘কেন আপনারা দেশের বাইরে ব্যাংক অ্যাকাউন্টধারী ব্যক্তিদের বাঁচানোর চেষ্টা করছেন। কেন আপনারা এসব লোকের নিরাপত্তাবলয় তৈরি করছেন। সলিসিটর জেনারেলের উপস্থিতিতে প্রকাশ্য আদালতে এ আদেশ দেওয়া হয়েছে। তাই নতুন সরকার এটির পরিবর্তন চাইতে পারে না। আমরা রায়ে হাত দিতে পারব না। এমনকি এর একটি শব্দও পরিবর্তন করতে পারব না।’

আদেশের সময় ভারতের প্রধান সরকারি আইন কর্মকর্তা (অ্যাটর্নি জেনারেল) মুকুল রোহতগি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ব্যাংক অ্যাকাউন্টগুলোর অবৈধ কি না, তা নিয়ে তদন্ত হওয়ার পরই কেবল সুপ্রিম কোর্ট নামের তালিকা প্রকাশ করতে পারেন। কিন্তু তাঁর (মুকুল) এ আবেদন প্রত্যাখ্যান করে আদালত সরকারকে নামের তালিকা দিতে বলেন। আদালত এ সময় বলেন, সরকার কোনো কিছু না করে আগে সব তথ্য প্রকাশ করুক। পরে আদালত বিশেষ তদন্ত দল (এসআইটি) কিংবা ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরো (সিবি আই) দিয়ে বিষয়টির তদন্ত করাবেন।

৩০ মিনিট শুনানির শেষে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, জার্মানিসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট থাকা ৫০০ ব্যক্তির নামের তালিকা সরকার পেয়েছে। এ সময় প্রধান বিচারপতি দাত্তু সরকারকে নিজ উদ্যোগে কোনো তদন্তে না নামতে বলেন। তিনি বলেন, যদি এ বিষয়ে সরকার তদন্তে নামে, তবে তাঁর জীবদ্দশায় এ কাজ শেষ হবে না।

প্রধান বিচারপতি দাত্তু, বিচারপতি রঞ্জনা প্রকাশ দেশাই ও বিচারপতি মদন বি লকুর সমন্বয়ে গঠিত এই বেঞ্চ সরকারকে আরও বলেন, ‘আপনারা কিছু করবেন না। কেবল অ্যাকাউন্টধারীদের তথ্য আমাদের কাছে সরবরাহ করুন। আমরা পরবর্তী তদন্তের নির্দেশ দেব।’

You Might Also Like