রিয়াল-বার্সার খেলা নিয়ে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ৪

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সোলনার ফুটবল সমর্থন এবং খেলা দেখাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এসময় ৪ জন গুলিবিদ্ধসহ উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলায় চৌমুহনী পৌরসভার করিমপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধরা হলেন- ইমাম হোসেন (১৭), মো. পারভেজ (৪০), পান্তসহ (২২) ৪ জন। অন্য আহতরা হলেন- স্থানীয় মোহাম্মদ উল্ল্যার ছেলে ও মালেশিয়া প্রবাসি শাহাদাত হোসেন রিমন (৩০)সহ ৬ জন।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, রাত ১০টায় স্পানিশ লিগের খেলায় ফুটবল ক্লাব বার্সোলনা ও রিয়াল মাদ্রিদ মাঠে নামে। খেলায় চৌমুহনী পৌরসভার করিমপুর গ্রামের রেজিস্ট্রি অফিসের পার্শ্ববর্তী আমিনাগো বাড়ির কয়েকজন যুবক বার্সোলনার ও মফিজ ভাণ্ডরিগো বাড়ির যুবকরা রিয়ালের সমর্থক।

খেলা শেষে বার্সোলনাকে ৩-১ গোলে পরাজিত করে রিয়াল। খেলায় জয় পরাজয় নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বাকবির্তক ও ধাওয়া- পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষ একে অপরের ওপর ধারলো অস্ত্র ও বন্দুক নিয়ে হামলা চালালে সংঘর্ষ বাধে।

এতে ৪ জন গুলিবিদ্ধসহ ধারালো অস্ত্রের আঘাতে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হন।

আহতদের উদ্ধার ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালসহ স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তবে নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় আমিনাগো বাড়ি ও মফিজ ভান্ডারিগো বাড়ির লোকজনের মধ্যে মাদক, চাঁদাসহ বিভিন্ন ঘটনা নিয়ে দীর্ঘদিন পর্যন্ত বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধের জের ধরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এখানে খেলাটা ছিল মাত্র একটা সূত্র।

এদিকে, আহত প্রবাসি রিমনের ভাই রিয়াজ অভিযোগ করে বলেন, ওই এলাকার কয়েকজন তার প্রবাসি ভাই রিমনের কাছে মোটা অঙ্কের চাঁদা দাবি করেন। তাদের দাবিকৃত চাঁদার টাকা না দেয়ায় বাড়ি ফেরার পথে রিমনের ওপর হামলা চালিয়ে তাকে কুপিয়ে জখম করে পানিতে ফেলে দেয় ওই সন্ত্রাসীরা।

পরে গুরুতর অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। গত কয়েক মাস আগেও একই দাবিতে জাহাঙ্গীর ও তার লোকজন রিমনের ওপর হামলা চালিয়েছে বলেও রিয়াজ জানান।

বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ফুটবল খেলা দেখা নিয়ে স্থানীয় কয়েকজন যুবক সংর্ঘষে লিপ্ত হয়। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে কয়েকজন জখম হয়েছে বলে শুনেছি। তবে, এ বিষয়ে থানায় কোনো অভিযোগ আসেনি।

You Might Also Like