বাবার পাশেই গোলাম আযমকে দাফন

মানবতাবিরোধী অপরাধে ৯০ বছর কারাদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতের সাবেক আমির গোলাম আযমের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

শনিবার বিকাল ৩টা ২০ মিনিটে তার দাফন সম্পন্ন হয়। মগবাজারে পারিবারিক কবরস্থানে তার বাবা আর ভাইয়ের কবরের মাঝখানে তাকে দাফন করা হয়।

এর আগে ইসলামপন্থি বাংলাদেশ সম্মিলিত জোটসহ কয়েকটি সংগঠনের বিরোধিতার মুখে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে শনিবার বাদ জোহর বায়তুল মোকাররমে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। তার চতুর্থ ছেলে আব্দুল্লাহিল আমান আযমী জানাজায় ইমামতি করেন।

জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমির মকবুল হোসেন ও ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমানসহ জামায়াত নেতারা জানাজায় শরীক হন।

এর আগে দুপুর ১টায় তার মরদেহ জানাজার জন্য মগবাজারের বাসা থেকে আলিফ মেডিকেলের লাশবাহী গাড়িতে করে বায়তুল মোকাররমে নেয়া হয়। গোলাম আযমের জানাজায় জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীদের ব্যাপক উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।

বৃহস্পতিবার রাত ১০টা ১০ মিনিটে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে গোলাম আযমকে গতবছর ৯০ বছরের সাজা দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। অবশ্য ট্রাইব্যুনাল রায়ে উল্লেখ করেন, ‘গোলাম আযমের অপরাধ ছিল মৃত্যুদণ্ডযোগ্য। কিন্তু বয়স ও শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে তাকে এই সাজা দেয়া হয়।’

You Might Also Like