চিমনিপথে অভিসার

পৃথিবীর লিখিত অলিখিত সব ইতিহাসেই দেখা যায়, প্রেম ব্যাপারটা মানুষকে যতটা বিব্রত করেছে, আর কিছুই ততটা নয়। ক্যালিফোর্নিয়ার নারী জেনোভেভা নুনেজ ফিগেরোয়া প্রেমঘটিত কলঙ্কের পাতায় আরও একটি লাইন যুক্ত করলেন বলা যায়।

জেনোভেভা যাকে ভালোবাসতেন, তার সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায় কিছুদিন আগে। এরপর থেকেই মূলত প্রেমের দ্বিতীয় অধ্যায় শুরু হলো তার। প্রতিদিন সম্পর্ক ভাঙার অপরাধবোধ আর পূর্বপ্রেমিকের প্রতি মমতা তার উত্তরোত্তর বাড়তে থাকলো। ঘটনার পুরোপুরি না জানা গেলেও বোঝা যায়, যুবকটির সঙ্গে একটু কথা বলাটা হয়ত তার জন্যে খুব জরুরী ছিল। কিন্তু অপর দিক থেকে আসছিল না কোন ইতিবাচক সাড়া। কিন্তু, কোন পথ না পেয়ে কি তিনি পূর্বপ্রেমিকের বাড়ির চিমনি দিয়ে ঘরে ঢোকার পাগলামি করে বসবেন?

ক্যালিফোর্নিয়া ভেনচুরা কাউন্টির সংশ্লিষ্ট এলাকার মানুষেরা এক ভোরে করুণ চিৎকার শুনে সচকিত হয়ে উঠলো। ঘড়িতে সময় তখন পোনে ছয়টা। প্রতিবেশীদের একজন ৯১১ নাম্বারে ডায়াল করলেন। কিছুক্ষণ পর দমকলবাহিনীর একটি দল চলে এলো। খুঁজে পেতে করুণ চিৎকারের উৎস যখন পাওয়া গেল, তখন দুঃখ এবং হাসি দুটোই সামলানো মুশকিল হয়ে পড়েছে সবার জন্যে।

চিমনির সরু গর্তে অসহায় হয়ে একেবারে আঁটো হয়ে আটকে আছেন জেনোভেভা নুনেজ ফিগেরোয়া। এরপর দমকল বাহিনী তাকে উদ্ধার করতে ফেড়ে ফেললো চিমনি। তারপর বাসন ধোয়ার তরল সাবান দিয়ে জেনোভেভাকে একরকম গোসল করিয়ে টেনে বের করে আনা হলো।

ভাবছেন, এখানেই বুঝি হলো অবসান?

না। এরপর তাকে পুরো আড়া হাজার ডলার জরিমানা করা হলো কারও অজ্ঞাতে তার বাড়িতে অনধিকারে অনুপ্রবেশ চেষ্টার জন্যে। এ ঘটনায় জেনোভেভার পূর্বপ্রেমিকের প্রতিক্রিয়া জানা যায়নি।

You Might Also Like