বিত্তবানরা কেন রেড ওয়াইন দিয়ে গোসল করেন?

বাথটাবে পানির বদলে রেড ওয়াইন দিয়ে শরীর ডুবিয়ে রাখার এক নতুন বিলাসীতা শুরু হয়েছে। বিলিয়নেয়ার ব্যবসায়ী বা খেলোয়াড়রা এই ওয়াইন থেরাপি নিতে ছুটে যাচ্ছেন অভিজাত স্পাগুলোতে। ওয়াইন বা ভিনেগারে শরীর ডুরিয়ে রাখার প্রচল অবশ্য নব্বইয়ের দশক থেকেই মোটামুটি চালু হয়েছে।

তবে সম্প্রতি মার্কিন বাস্কেটবল খেলোয়াড় আমারে স্টুডমায়ার ইনস্টাগ্রামে এমন একটি ছবি পোস্ট করেছেন যেখানে ওয়াইনভর্তি বাথটাবে শরীর ডুবিয়ে রেখেছেন তিনি। ছবিটি অনলাইনে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এ কারণে ওয়াইনে গোসল করার বিষয়টি নতুনভাবে আলোচনায়।

এই অভ্যাস বা রীতিকে অনেক প্রাচীনকাল থেকেই ‘ভাইনোথেরাপি’ বা ভিনেগার থেরাপি বলা হয়। এই কাজে ওয়াইন বা আঙ্গুরলতা, আঙ্গুর এবং এর বীজ ব্যবহার করা হতো। এতে স্বাস্থ্যের নানা উপকার হয় বলে বিশ্বাস।

স্টুডমায়ার জানান, গত আট মাস থেকে তিনি এই থেরাপি নিচ্ছেন। এতে নাকি খেলার সব ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। তিনি বলেন, ‘রেড ওয়াইনের গোসল আমার জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি আমার লোহিত রক্ত কণিকার সঞ্চালন বাড়িয়ে দেয়।’

ওয়াইন প্রস্তুতকারক থিবুল্ট গারিনও ওয়াইনের সুইমিংপুলে গোসল করেন। সম্প্রতি জাপানের স্পা রিসোর্ট হাকোন ইউনেসুনে বন্ধুদের সঙ্গে ওয়াইনের সুইমিংপুলে তাকে দাপাদাপি করতে দেখা গেছে।

নিউইয়র্ক ম্যাগাজিন এক প্রতিবেদনে জানায়, এই রীতিটি শুরু হয়েছে ১১৯৩ সালে ফ্রান্সের বোর্দক্সের একটি আঙ্গুরক্ষেত থেকে। এখানে বেড়াতে আসা এক ফরাসি অধ্যাপক আঙ্গুর ক্ষেতের মালিকদের বলেন, পলিফেনল নামে এক প্রকার অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ওয়াইন তৈরির সময় উৎপন্ন হয়। এটি ত্বকের বলিরেখা দূর করতে ভিটামিন ই এর চেয়ে ১০ গুণ কার্যকরী।

অধ্যাপকের এই পরামর্শের পর মাতিলদে কাথিদো থমাস ‘কাউদালি’ নামে স্কিন কেয়ার কোম্পানি খুলে বসেন। এটি এখন সারা বিশ্বে শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠানে দাঁড়িয়ে গেছে এবং বিভিন্ন দেশে এদের ভাইনোথেরাপি স্পা রয়েছে।

এদের পরিসেবা নিতে হলে ফেসিয়ালের জন্য ২০৫ ডলার, ম্যাসাজের জন্য ১৯৫ এবং পানি ও ওয়াইন মিশ্রণে হালকা গোসলের জন্য আপনাকে ৭৫ ডলার গুণতে হবে।

You Might Also Like